বিপর্যস্ত তুরস্কের অর্থনীতি

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
একতা বিদেশ ডেস্ক : এক লাফে তুরস্কের মুদ্রা লিরার দাম কমে গেছে ৪ শতাংশ। ফলে এখন এক ডলার দিয়ে কেনা যাচ্ছে ১০.৩৬ লিরা। প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েফ এরদোগানের অধীনে অনেক আগে থেকেই কমে চলেছে তুরস্কের মুদ্রার মান। তবে লিরার দাম সাম্প্রতিক সময়ে একসঙ্গে এতটা কমেনি। মুদ্রাবাজারে লিরার দামের এই শোচনীয় অবস্থাই বলে দেয় তুরস্কের অর্থনীতি এখন সংকটের মুখে। গত বছর অক্টোবর মাসের তুলনায় তুরস্কে মুদ্রাস্ফীতি বেড়েছে ২০ শতাংশ। যদিও নিরপেক্ষ মুদ্রাস্ফীতি রিসার্চ গ্রুপের মতে, আগের তুলনায় মুদ্রস্ফীতি বেড়েছে ৫০ শতাংশ। দেশটির নাগরিকরা বলছেন, আগে কখনো এই ধরনের অবস্থার মুখে পড়তে হয়নি তাদের। ঘুম থেকে উঠেই দেখা গেলো সকল জিনিসের দাম বেড়ে গেছে। গতকাল যে তেল ছিল ৪০ লিরা আজ তার দাম ৮০ লিরা! বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মূলত প্রেসিডেন্ট এরদোগানের অর্থনীতি নিয়ে উদ্ভট চিন্তাই এর জন্য দায়ি। তুর্কি প্রেসিডেন্টের ধারণা, ঋণের ক্ষেত্রে সুদের পরিমাণ কম রাখলেই বুঝি অর্থনীতি ফুলেফেঁপে উঠবে। তার ধারণা, মুদ্রার দাম কম হওয়া মানে আর্থিক বৃদ্ধি সুনিশ্চিত হওয়া। কিন্তু অর্থনীতিবিদরা মনে করেন উল্টোটা। তারা বলছেন, এমন নীতিই তুরস্ককে ডুবিয়েছে। মুদ্রাস্ফীতির ফলে জিনিসের দাম বাড়ছে। মুদ্রার মূল্য কমে যাওয়ায় আমদানি করতে অনেক বেশি অর্থ লাগছে। জ্বালানি তেল থেকে সংসারের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম তাই হু হু করে বাড়ছে। তুরস্কের শিল্পও কাঁচামালের জন্য বিদেশের উপরই নির্ভর করে। তাই তাদেরও বেশি অর্থ খরচ করে তা আমদানি করতে হচ্ছে। অর্থনীতিবিদ ওজলেম ডেরিসি সেনগাল নিশ্চিত করেছেন যে, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের উপরে এত হস্তক্ষেপ করার ফলেই এই অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। ২০১৯ থেকে এরদোগান রিজার্ভ ব্যাংকের চারজন গভর্নর নিয়োগ করেছেন। যারাই সুদের হার কম করার বিরোধিতা করেছেন, তাদের বরখাস্ত করা হয়েছে সেখান থেকে। তুরস্কের মানুষ এখন বেঁচে থাকার জন্য সোনা বিক্রি করে দিচ্ছেন। তাদের জমানো অর্থ ভাঙিয়ে খেতে হচ্ছে। ডলার বা ইউরো হাতে থাকলে তাও বিক্রি করে দিচ্ছেন তারা। সম্প্রতি কিছু ছাত্র পার্কে রাতে শুয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন। তাদের দাবি ছিল, বাড়ি ভাড়া এতটা বেড়েছে যে আর টানতে পারছেন না তারা। তাই এভাবে প্রতিবাদ জানাচ্ছেন। কিন্তু প্রতিবাদকারী ওই ছাত্রদের কাজকে ‘সন্ত্রাসবাদ’ বলে আখ্যা দিয়েছেন এরদোগান।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..