একাত্তরের ভয়ঙ্কর খুনি মুক্তিযোদ্ধা সেজে বসেছিলেন

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
একতা প্রতিবেদক : একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে ময়মনসিংহে তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এরা হলেন ঈশ্বরগঞ্জের আঠারবাড়ি ইউনিয়নের ইটাউলিয়া গ্রামের তারা মিয়া (৭০), কালিয়ান গ্রামের মো. রুস্তম আলী (৮১) এবং কোতোয়ালি মডেল থানার সৈয়দ মোস্তাফিজুর রহমান (৭২)। এর মধ্যে তারা মিয়া জালিয়াতির মাধ্যমে যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের ভাতা ভোগ করছিলেন। গত ২১ অক্টোবর এদের সবাইকে গ্রেপ্তার করা হয়। এদিনই ঈশ্বরগঞ্জ এলাকায় মুক্তিযুদ্ধের সময় গণহত্যার অভিযোগে ১২ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। চেয়ারম্যান বিচারপতি শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল এ আদেশ দেন। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন প্রসিকিউটর মোখলেসুর রহমান বাদল ও তাপস কান্তি বল। পরে তাপস কান্তি বল জানান, আসামিদের বিরুদ্ধে হত্যা-গণহত্যা, অপহরণ, নির্যাতন, লুণ্ঠনসহ মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগের তদন্ত শেষ পর্যায়ে। স্থানীয়রা জানায়, তারা মিয়া ছিলেন রাজাকার। নারীদের তুলে নিয়ে পাকিস্তানিদের হাতে তুলে দিতেন। অনেক মানুষকে হত্যায় নেতৃত্ব দিয়েছেন। কিন্তু স্বাধীনতার পরে বাস দুর্ঘটনায় শরীরিকভাবে অক্ষম হয়ে এক মুক্তিযোদ্ধার নম্বর জালিয়াতি করে যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা বনে যান। সেই সুবাদে রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ ব্যক্তিদের কাছ পর্যন্ত যাওয়ার সুযোগ হয় তারা মিয়ার। মোস্তাফিজ ছিলেন সবচেয়ে ভয়ঙ্কর খুনি। যুদ্ধের সময় নিরীহ মানুষকে নৃশংসভাবে হত্যা করতেন। রাজাকার তারা মিয়ার মুক্তিযোদ্ধা বনে যাওয়ার প্রসঙ্গে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা বলেন, জেলার আঠারবাড়ি ইউনিয়নের ইটাউলিয়া গ্রামের সমশের আলীর ছেলে তারা মিয়া। একই নামে গৌরীপুরের ধোপাজাঙ্গালিয়া গ্রামে মুক্তিযোদ্ধা রয়েছেন তারা মিয়া। তার বাবার নামও সমশের আলী। স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে পাশের গৌরীপুর উপজেলার ধোপাজাঙ্গালিয়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা তারা মিয়ার ভারতীয় গেজেট নম্বর নিজের নামের সঙ্গে যুক্ত করে মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টে যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধার তালিকাভুক্ত হয়ে যান। স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধাদের কাছে যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা আসার পর তারা মিয়াকে ঘিরে সন্দেহ শুরু হয়। যাচাই করে কয়েকজন মুক্তিযোদ্ধা জানতে পারেন তারা মিয়া নামে ঈশ্বরগঞ্জের কোনো মুক্তিযোদ্ধা নেই। গৌরীপুরের ধোপাজাঙ্গালিয়া গ্রামে রয়েছেন তারা মিয়া নামে মুক্তিযোদ্ধা। ২০১৭ সালে যাচাই বছাইয়ে ‘গ’ তালিকাভুক্ত হন তারা মিয়া।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..