কিউবার সমর্থনে বাংলাদেশের জোরাল অবস্থান ঘোষণার দাবি

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email

একতা প্রতিবেদক : কিউবার সরকার ও সে দেশের বিপ্লবী জনতার সাথে বাংলাদেশের সর্বস্তরের জনগণের পক্ষে অনুষ্ঠিত এক সংহতি সমাবেশে বক্তারা বলেছেন, বিশ্ববিপ্লবের এক মহানায়ক কমরেড ফিদেল ক্যাস্ত্রোর নেতৃত্বে যে দ্বীপরাষ্ট্রটি ১৯৫৯ সালে স্বৈরসাশক বাতিস্তাকে উৎখাত করে একটি সমাজতান্ত্রিক, মানবিক রাষ্ট্র হিসেবে বিশ্বের বুকে পুনর্জন্ম লাভ করেছিল, মার্কিন সাম্রাজ্যবাদের রক্তচক্ষুকে উপেক্ষা করে আজও তা মাথা উঁচু করে দাড়িয়ে আছে। কিউবা হচ্ছে সেই রাষ্ট্র যারা স্বাস্থ্যসেবায় পৃথিবীতে শীর্ষ মান অর্জন করে দেখিয়ে দিয়েছে, সমাজতন্ত্র কী করতে পারে। তারা বলেন, বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু রাষ্ট্র কিউবা। কিউবার সংগ্রামী মানুষের পাশে বাংলাদেশের সর্বস্তরের মানুষ সবসময়ই সংহতির হাত বাড়িয়েছে। সমাবেশ থেকে কিউবার সরকার ও জনগণের ন্যায়সংগত সংগ্রামের সাথে পূর্ণ সংহতি জানানো হয়। বক্তারা একইসঙ্গে বাংলাদেশ সরকারের প্রতি দাবি জানিয়ে বলেন, কিউবার সমর্থনে বাংলাদেশের জোরাল অবস্থান ঘোষণা করতে হবে। ১৫ জুলাই শাহবাগে অনুষ্ঠিত এ সমাবেশে বক্তারা অবিলম্বে কিউবার উপর থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অন্যায্য অর্থনৈতিক অবরোধ প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে বলেন, ‘আমরা মার্কিন সাম্রাজ্যবাদের ঘৃণ্য অপকৌশলের বিরুদ্ধে পৃথিবীর সকল প্রগতিশীল, গণতান্ত্রিক, মানবিক রাষ্ট্র, রাজনৈতিক দল, ছাত্র-যুব-শ্রমজীবী-পেশাজীবী-সাংস্কৃতিক-সামজিক সংগঠনসমুহ এবং ব্যক্তিবর্গের প্রতি সোচ্চার প্রতিরোধের আহ্বান জানাচ্ছি।’ প্রবীণ চিকিৎসক, ডক্টরস ফর হেলথ এন্ড এনভায়রনমেন্টের সভাপতি অধ্যাপক ডা. আবু সাইদের সভাপতিত্বে, বাংলাদেশ যুব ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক খান আসাদুজ্জামান মাসুমের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, বাম জোটের সমন্বয়ক, বাসদ নেতা বজলুর রশীদ ফিরোজ, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন নান্নু, বাসদ (মার্ক্সবাদী) কেন্দ্রীয় নেতা আ ক ম জহিরুল ইসলাম, ক্ষেতমজুর সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ডা. ফজলুর রহমান, কৃষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ জহির চন্দন, গণজাগরণ মঞ্চের সংগঠক আকরামুল হক , কিউবা বাংলাদেশ মৈত্রী সমিতির সহসাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট হাসান তারিক চৌধুরী সোহেল, কেন্দ্রীয় নেতা মোকলেসুর রহমান লাল্টু, যুব ইউনিয়নের সভাপতি হাফিজ আদনান রিয়াদ, সাংস্কৃতিক সংহতির সভাপতি ইফতেখার বাবু, গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের আর্ন্তজাতিক সম্পাদক নেতা মঞ্জুর মইন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক নাসিরুদ্দিন প্রিন্স, ছাত্র নেতা সুমাইয়া সেতু, সঞ্জয় কান্তি দাশ। কিউবা সংহতির ঘোষনা পাঠ করেন গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সভাপতি অ্যাড. মন্টু ঘোষ । সমাবেশ উপস্থিত ছিলেন উদীচীর সাধারণ সম্পাদক জামশেদ আনোয়ার তপন, নিপীড়ন বিরোধী শাহবাগের সংগঠক জীবনানন্দ জয়ন্ত, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা শহিদুল ইসলাম সবুজ, গণসংহতি আন্দোলনের মনির উদ্দিন পাপ্পু । সমাবেশে সিপিবির সভাপতি কমরেড সেলিম বলেন, ‘কিউবার বিপ্লবী সরকারের পক্ষে তাবৎ দুনিয়ার মানবতাবাদী বিপ্লবী দলগুলো সংহতি জানাচ্ছে। কিউবা ৫৫ বছর ধরে সাম্রাজ্যবাদী আগ্রাসনের শিকার, এই আগ্রাসনের বিশ্ববাসীকে সোচ্চার হতে হবে।’ অন্য বক্তারা বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের যড়যন্ত্র মোকাবেলায় কিউবার জনগণ রাজপথে আছে, তারাই সকল ষড়যন্ত্র প্রতিহত করবে। কোনো ষড়যন্ত্র কিউবার মহান বিপ্লবকে ধ্বংস করতে পারবে না।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..