বিলুপ্তির পথে প্রাণজুড়ানো হাতপাখা

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
মাগুরা সংবাদদাতা : আবহমানকালের গ্রামবাংলার ঐতিহ্যময় ইতিহাসের এক অবিচ্ছেদ্য অংশ হচ্ছে তালের পাখা। চৈত্র-বৈশাখ মাসে তীব্র দাবদাহ শুরু হলেই মনে পড়তো তালের পাখার। আর প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষের কাছে গরমকাল আসা মানেই হাতপাখার কদর বেড়ে যাওয়া। এটা যেন তাদের পরম বন্ধু। তবে মাগুরায় হারিয়ে যেতে বসেছে এই হাতপাখা। মাগুরা সদর হাসপাতালের সামনে হাতপাখা বিক্রেতা আরজ আলী বলেন, কয়েক বছর আগেও তিনি প্রতিদিন গড়ে ৫০-৬০টি হাতপাখা বিক্রি করতেন। গরমকালে যা বেচাকেনা করতেন তা দিয়ে সারাবছর ভালোই চলত। কিন্তু বর্তমানে হাতপাখার দাম বৃদ্ধি পেলে বেচাবিক্রি কমে গেছে। এখন এমন দিনও আছে যেদিন একটি পাখাও বিক্রি হয় না। হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা এক রোগীর স্বজন জানান, বর্তমানে দেশের বিদ্যুৎখাতকে সরকার গুরুত্ব দেয়ায় বিদ্যুৎবিভ্রাট নেই বললেই চলে। এজন্য তাদের এখন আর আগে মতো হাতপাখার প্রয়োজন হয় না। সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে গিয়ে এটা আর কেনা হয়ে ওঠে না। তবে তালপাতার হাতপাখা সব জায়গায় পাওয়া যায় না বলে তিনি অভিযোগ করেন। এছাড়া প্লাস্টিকের হাতপাখাগুলো ব্যবহার সহজ ও দামেও কম বলে এখন আর তালপাতার হাতপাখা ক্রেতারা কিনতে চান না বলে জানান তিনি। হাতপাখার কারিগর আব্দুল ওয়াহাব জাগো নিউজকে বলেন, ‘কাঁচামাল সঙ্কট ও মুনাফা কম হওয়ায় এই পেশাও পাল্টে ফেলছেন তালপাখার কারিগররা। যারা এখনো এ পেশায় আছেন তাদের অবস্থা ভালো নয়। কোনো রকমে টিকে থাকার জন্য প্রতিনিয়তই সংগ্রাম করে যাচ্ছেন তারা।’

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..