বাম বিকল্প গড়ে তোলার ক্ষেত্রে কমরেড জাফরের অবদান চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
একতা প্রতিবেদক : বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ আবু জাফর আহমেদের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তারা বলেছেন, বাম গণতান্ত্রিক বিকল্প শক্তির বলয় গড়ে তোলার ক্ষেত্রে কমরেড জাফরের অবদান চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে। ২৯ মে সিপিবি’র সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ) সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান, সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলম, প্রেসিডিয়াম সদস্য মিহির ঘোষ, সিপিবি মৌলভীবাজার জেলার সভাপতি মকবুল হোসেন, সৈয়দ আবু জাফর আহমেদ স্মৃতি সংসদের সহ-সভাপতি বাবলা দেব, কমরেড সৈয়দ আবু জাফরের স্ত্রী কাওসার পারভীন, সিপিবি নেতা চন্দন সিদ্ধান্ত। আলোচনা সভা সঞ্চালন করেন সিপিবি সহকারী সাধারণ সম্পাদক কাজী সাজ্জাদ জহির চন্দন। সভায় বক্তারা বলেন, কমরেড সৈয়দ আবু জাফর আহমদ ছিলেন আদর্শ ও নীতির প্রশ্নে অত্যন্ত দৃঢ় মনোভাবাপন্ন। তিনি ছিলেন অত্যন্ত বিনয়ী ও সজ্জন। রাজনৈতিক প্রজ্ঞা ও চারিত্রিক দৃঢ়তার কারণে পার্টির নীতি-আদর্শ ও রাজনৈতিক লাইন বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে তিনি আপসহীন ভূমিকা পালনে সক্ষম হয়েছেন। বাম-গণতান্ত্রিক বিকল্প শক্তি বলয় গড়ে তোলার কাজেও তার অবদান স্মরণীয় হয়ে থাকবে। বিলোপবাদীদের পার্টি ধ্বংসের অপচেষ্টা রুখতে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে তিনি জীবনবাজি রেখে যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন, স্বাধীন দেশে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে আন্দোলন গড়ে তুলেছেন। তেল-গ্যাস জাতীয় সম্পদ রক্ষার আন্দোলনে তার ভূমিকা অবিস্মরণীয়। ছাত্র আন্দোলন, ক্ষেতমজুর আন্দোলন ও সাংস্কৃতিক আন্দোলনে তিনি বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করেছেন। এদিন সিপিবি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে কমরেড সৈয়দ আবু জাফরের প্রতিকৃতিতে সিপিবি’র সহকারী সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ জহির চন্দনের নেতৃত্বে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। এছাড়া সৈয়দ আবু জাফরের মৃত্যুবার্ষিকীতে সিপিবি মৌলভীবাজার, খুলনা জেলায় আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..