মোঃ আমিন

রাশিদুল সামির

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email

১৯১৮ সালে চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলার গোমদন্ডী গ্রামের একটি সাধারণ পরিবারে জন্ম নেন মোঃ আমিন। স্কুল ও মাদরাসায় প্রাথমিক পাঠে তার শিক্ষাজীবন শুরু। প্রথম যৌবনে মাস্টার দা'র নেতৃত্বে চট্টগ্রামের যুব বিদ্রোহ তার নিউরনে অনুরণন ঘটায়। পাকিস্তান প্রতিষ্ঠার পর মানব মুক্তির সংগ্রামের ধারায় তিনি ধীরে ধীরে বাম বিপ্লবী রাজনীতির সাথে যুক্ত হন। কবিয়াল রমেশ শীলসহ অন্যান্য অনেক বিপ্লবীদের সঙ্গে তার সাহচার্য ও ঘনিষ্ঠতা বৃদ্ধি পায়। ৫৪'র যুক্তফ্রন্ট নির্বাচনের সময় তিনি কমিউনিস্ট পার্টির রাজনীতিতে সক্রিয় হন। পুরো ষাটের দশকে গণমানুষের সমস্ত আন্দোলন সংগ্রামে কমরেড মোঃ আমিন ছিলেন সোচ্চার, একজন আলোর পথযাত্রী। তিনি ছিলেন কৃষক নেতা ও আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধের একজন সংগঠক। চারপাশের রাজনৈতিক ও সামাজিক পশ্চাৎপদতা ও রক্ষণশীলতা পাশ কাটিয়ে একজন মানুষ তার নিজের জীবন সঁপে দিয়েছেন মানুষের জন্য। আমৃত্যু তিনি কমিউনিস্ট পার্টিতে সক্রিয় ছিলেন। বোয়ালখালীর উপজেলা সদরে গোমদন্ডী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, বোয়ালখালী সিরাজুল ইসলাম ডিগ্রি কলেজ, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স প্রতিষ্ঠার অন্যতম উদ্যোক্তা। শিশুদের জন্য আনন্দময় শৈশব, অসাম্প্রায়িক, মানবিক বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে ১৯৭৪ সালে বোয়ালখালী উপজেলা সদরে জাতীয় শিশু-কিশোর সংগঠন “খেলাঘর” এর শাখা দিশারী খেলাঘর আসর প্রতিষ্ঠা করেন। লুংগি-পাঞ্জাবি পরিহিত সাধারণ কর্মচঞ্চল এ মানুষটা ছিলেন সকলের প্রিয় ব্যাক্তিত্ব "আমিন দা"। অর্থ, বিত্ত, মোহ, পদলোভ কোনদিন তাকে স্পর্শ করেনি, বরঞ্চ কাজ করতেন পর্দার আড়ালে থেকে। তার কর্মজীবন ও ব্যাক্তিত্ব সবাইকে মোহিত করে। তার সমগ্র জীবন নিবেদিত ছিল মানুষের জন্য। আজকের দিনে যে স্ট্যান্ডবাজি, পদলোভ, দলাদলি কিংবা রাজনৈতিক শিষ্টাচার বহির্ভূত কাজ দেখা যায় তা তাকে স্পর্শ করেনি। ১৫ এপ্রিল ২০১০ ভোর সাড়ে তিনটায় ৯২ বছর বয়সে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..