‘জেলেই মারা যেতে পারেন জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ’

Posted: 01 ডিসেম্বর, 2019

একতা বিদেশ ডেস্ক : উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জের স্বাস্থ্যের বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া, ব্রিটেন, সুইডেন, ইতালি, জার্মানি, শ্রীলঙ্কা ও পোল্যান্ডের ৬০ জন চিকিৎসক। তারা বলেছেন, জেলেই মারা যেতে পারেন জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ। এমন উদ্বেগ জানিয়ে ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রীতি প্যাটেলের কাছে একটি চিঠি লিখেছেন তারা। তাতে অ্যাসাঞ্জকে ব্রিটেনের বেলমার্শ কারাগার থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষায় ব্যবহৃত কোনো হাসপাতালে স্থানান্তর করার অনুরোধ জানানো হয়েছে। তাদের লেখা ওই খোলা চিঠি প্রকাশিত হয়েছে ২৫ নভেম্বর। বর্তমানে অ্যাসাঞ্জ কঠোর নিরাপত্তায় বন্দি রয়েছেন ব্রিটেনের ওই বেলমার্শ কারাগারে। গুপ্তচরবৃত্তি বিষয়ক আইনের অধীনে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে তাকে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হস্তান্তরের দাবি রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের সেই দাবির বিরুদ্ধে এখন লড়াই করছেন অ্যাসাঞ্জ। যুক্তরাষ্ট্রের অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাকে ১৭৫ বছর পর্যন্ত জেল দেয়া হতে পারে। উল্লেখ্য, আফগানিস্তান ও ইরাক যুদ্ধ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের গোপন সামরিক ও কূটনৈতিক অসংখ্য ফাইল ২০১০ সালে ইউকিলিকসের মাধ্যমে ফাঁস করে দেন অ্যাসাঞ্জ। এতে বিব্রতকর অবস্থায় পড়ে যুক্তরাষ্ট্র। ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে লেখা চিঠিতে ওই চিকিৎসকরা বলেছেন, জেলখানায় অ্যাসাঞ্জের স্বাস্থ্যের অবনতি হচ্ছে। এতে তিনি জেলেই মারা যেতে পারেন। ২১ অক্টোবরে তাকে লন্ডনের একটি আদালতে তোলা হয়েছিল। সেখানে প্রত্যক্ষদর্শীরা তার ভয়াবহ অবস্থা প্রত্যক্ষ করেছেন। এ ছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের নির্যাতন বিষয়ক স্পেশাল র্যাপোর্টিউর নিলস মেলজার ১ নভেম্বর একটি রিপোর্ট দিয়েছেন। এসব রিপোর্ট থেকে প্রাপ্ত তথ্যের ওপর নির্ভর করে চিকিৎসকরা তাদের উদ্বেগ জানিয়েছেন। নিলস মেলজার বলেছেন, অব্যাহত স্বেচ্ছাচারিতা ও নিয়ম লঙ্ঘনের কারণে শিগগিরই অ্যাসাঞ্জ মারা যেতে পারেন। এর ওপর ভিত্তি করে ৬০ জন চিকিৎসক তাদের ১৬ পৃষ্ঠার খোলা চিঠিতে বলেছেন, মেডিকেল অফিসার হিসেবে আমরা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জের শারীরিক ও মানসিক অবস্থায় আমাদের গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করছি। আগামী ফেব্রুয়ারিতে অ্যাসাঞ্জের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রে ফেরত পাঠানোর বিষয়ে পূর্ণাঙ্গ শুনানি হওয়ার কথা। সেই প্রেক্ষিতে চিকিৎসকরা বলেছেন, অ্যাসাঞ্জ এখনও সুস্থ নন। এ নিয়ে তাদের উদ্বেগ রয়েছে। তার শারীরিক এবং মানসিক উভয় বিষয়ে জরুরি বিশেষজ্ঞ মেডিকেল সুবিধা প্রয়োজন। যদি তাকে এসব সুবিধা দেয়া না হয় তাহলে বর্তমানে আমাদের হাতে যে তথ্যপ্রমাণ রয়েছে তাতে অ্যাসাঞ্জ জেলেই মারা যেতে পারেন। তাই সময় নষ্ট না করে তার মেডিকেল সুবিধা জরুরি হয়ে পড়েছে।