বানারীপাড়ার দশ শয্যা হাসপাতালটি বেহাল

Posted: 06 অক্টোবর, 2019

বরিশাল সংবাদদাতা : বানারীপাড়ার চাখার দশ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালের অবস্থা বেহাল। দ্বিতল ভবনের পলেস্তারা খসে পরে কক্ষগুলো ভুতুড়ে পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছে। সামান্য বৃষ্টি হলে পানি জমা হয়ে সমস্ত ফ্লোর সয়লাব হয়ে যায়। হাসপাতালের নিচতলার অবস্থাও একইরকম। সরেজমিনে দেখা যায়, ডাক্তারদের কক্ষের ছাদের পলেস্তারা যেকোনো সময় ভেঙে পড়ে মারাত্মক দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। এ হাসপাতালের ডাক্তার ও নার্সদের কোয়ার্টার দীর্ঘদিন ধরে ভুতুড়ে পরিবেশের অবস্থা বিরাজ করছে। এ ব্যাপারে হাসপাতালের কর্তব্যরত স্যাকমোর ডাক্তার তাসলিমা বলেন, আমার আগের স্থান পরিবর্তন করে নিজের নিরাপত্তার জন্য অন্য স্থানে বসে কাজ করছি। সেখানেও মারাত্মক বিপদের মধ্যে রয়েছি। কখন ছাদ ভেঙে পড়ে। ফার্মাসিস্ট হাসনাইন আহম্মেদ বলেন, এখানে যেকোনো মুহূর্তে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। কর্মীদের অভিযোগ মাঝে মাঝে প্রকৌশলীরা ভিজিট করেন, পরিস্থিতি দেখেন, কিন্তু কোনো প্রতিকার হয় না। আমরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। চিকিৎসা সেবা নেয়ার জন্য আসা সামিয়া বেগম বলেন, আমি অনেক দূর থেকে আমার ছয় বছরের ছেলেকে ডাক্তার দেখাতে আসি। কিন্তু হাসপাতালটি দেখে মনে হচ্ছে এটারই চিকিৎসা দরকার। এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ এস এম কবির হাসান বলেন, চাখার হাসপাতালের বেহাল অবস্থার ব্যাপারে অনেকবার স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরে চিঠি দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত আশানুরূপ কোনো তথ্য আমার কাছে নেই। এ হাসপাতালের স্টাফরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দায়িত্ব পালন করছে। ভবনটির ব্যাপারে জরুরি ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন।