ঢাবির হলে কর্মচারী নিয়োগে বাণিজ্যের অভিযোগ

Posted: 08 সেপ্টেম্বর, 2019

একতা প্রতিবেদক : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) বেগম রোকেয়া হলে কর্মচারী নিয়োগে হল ছাত্র সংসদের সহসভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং হল প্রশাসনের দিকে আঙ্গুল তুলেছে কয়েক শিক্ষার্থী। এ সংক্রান্ত কয়েকটি অডিও রেকর্ডও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দিয়েছে তারা। শিক্ষার্থীরা বলছে, হলের কর্মচারী নিয়োগে এদের যোগসাজশে ২১ লাখ টাকা লেনদেন হয়েছে। এ তথ্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার পর শিক্ষার্থী ও কর্মচারীদের হুমকিও দেয়া হচ্ছে। অভিযোগকারী শিক্ষার্থীদের মধ্যে রোকেয়া হলের আবাসিক শিক্ষার্থী শ্রবণা শফিক দীপ্তি, সায়েদা আফরিন শাফি ও জয়ন্তী রেজার নাম জানা গেছে। এদিকে দুর্নীতির অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ও বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হলের সাবেক প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. বেগম আকতার কামালকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্য বিশিষ্ট এ কমিটি হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ অধিদফতর থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে কমিটিতে সহকারী প্রক্টর ড. লিটন কুমার সাহাকে সদস্য-সচিব এবং রোকেয়া হলের আবাসিক শিক্ষক মনিরা বেগমকে সদস্য হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয়। নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও পর্যালোচনা করে আগামী ৭ কার্যদিবসের মধ্যে সুপারিশসহ প্রতিবেদন দাখিলের জন্য কমিটিকে অনুরোধ করা হয়েছে। প্রতিবেদন না পাওয়া পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট নিয়োগ কার্যক্রম বন্ধ থাকবে বলেও জানানো হয়।