‘উল্টো রথে’

Posted: 22 মার্চ, 2020

একতা প্রতিবেদক : বিখ্যাত গায়ক নচিকেতার একটি গানের প্রথম লাইনগুলো এরকম- ‘কোন এক উল্টো রাজা, উল্টো বুঝলি প্রজার দেশে / চলে সব উল্টো পথে, উল্টো রথে, উল্টো বেশে/’। সবটা গান শোনানোর পর নচিকেতা বলছেন, ‘এতো এক উল্টো দেশের গল্প শুনলে এতক্ষণ/ যদি কেউ এমন দেশের সন্ধান পাও তখন .../ জানিয়ে দিও আমায় বলব সেই দেশের কথা/ ... । এমন দেশের সন্ধান শিল্পী পেয়েছিলেন কি না জানা যায়নি। তবে বাংলাদেশের মানুষ বোধহয় এমন এক নির্বাচন কমিশনের পাল্লায় পড়ে গেছে, যে কি না ‘উল্টো পথে, উল্টো রথে, উল্টো বেশে’ বেশ মজা পেয়ে গেছে। সারাবিশ্ব যেখানে করোনাভাইরাসে কাঁপছে তখন আমাদের করিৎকর্মা নির্বাচন কমিশন আমাদের দেশে ২১ মার্চ তিনটি উপনির্বাচনের আয়োজন করেছে। নানাদিক থেকে এই নির্বাচন পিছিয়ে দেওয়ার কথা বলা হয়েছে মানবিক কারণে। কারণ, ঢাকায় ইভিএমে ভোট হবে, তাতে বিরাট ঝুঁকি রয়েছে। এটা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরও বলেছে। তবু অনড় নির্বাচন কমিশন। নির্বাচন কমিশনের সচিব মোহাম্মদ আলমগীর অদ্ভুত যুক্তি দিয়ে বলেছেন, ‘আমরা চিন্তা করেছি, খুব ভালো পরিবেশে যেহেতু ভোটার উপস্থিতি কম ছিল, তাই করোনার কারণে ভোটার কম হবে এটা ধরেই নেওয়া হয়েছে। সুতরাং করোনার সংক্রামণ হওয়ার সম্ভাবনাও কম।’ তিনি আরো বলেছেন, ‘নতুন করে ভোটের তারিখ নির্ধারণ করলে তাদের অনেক টাকার অপচয় হবে। এসব কথা চিন্তা করে ভোটের দিন না পেছানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ ছাড়া দেশে করোনাভাইরাস এখনো মহামারী আকারে ছড়াইনি। তাই ভোট হবে।’ সরকারের এই সচিবই অবশ্য বিগত ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের পর ভোটার উপস্থিতি কম থাকা প্রসঙ্গে বলেছিলেন, এখনকার ভোটাররা ফেসবুকিং করে বেশি রাতে ঘুমায়, তাই ঘুম থেকে উঠে দেরিতে।