গণঅভ্যুত্থানই পারে ‘কর্তৃত্ববাদী এই সরকারের পতন ঘটাতে’

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email

মানিকগঞ্জে গণসমাবেশের আগে সিপিবির বিক্ষোভ
একতা প্রতিবেদক ঃ পেঁয়াজের দাম আকাশ ছুঁয়েছে, চাল ডাল নিত্য পণ্যের দামের উর্ধ্বগতিতে কেউ থামাতে পারছে, এই ধরনের বুর্জোয়া সরকারগুলো সেটা পারবেও না। জুজুর ভয় দেখিয়ে লাভ নেই। জোট-মহাজোটের বাইরে কমিউনিস্টদের নেতৃত্বে বাম গণতান্ত্রিক বিকল্প শক্তিই পারে এই ব্যবস্থা বদলাতে। মানিকগঞ্জে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) সমাবেশে মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম একথা বলেছেন। গত ২৮ নভেম্বর সকালে মানিকগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় (বিজয় মেলা মাঠ) সংলগ্ন মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিফলকের সামনে অনুষ্ঠিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব বলেন। সিপিবি মানিকগঞ্জ জেলার সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য অধ্যাপক আবুল ইসলাম শিকদারের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিপিবি জেলা কমিটির সভাপতি নুরুল ইসলাম। সমাবেশে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিপিবি কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক আব্দুল্লাহ ক্বাফী রতন, সিপিবি কেন্দ্রীয় কমিটির অন্যতম সদস্য অ্যাড. আজাহারুল ইসলাম আরজু, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি মেহেদি হাসান নোবেল, সিপিবি জেলা কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. মিজানুর রহমান হযরত, সংগঠনের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মজিবুর রহমান মাস্টার, সহকারী সাধারণ সম্পাদক আরশেদ আলী মাস্টার, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য নজরুল ইসলাম। সিপিবি সভাপতি বলেন, দেশে চলমান সংকটের জন্য ভোটারবিহীন অবৈধ সরকারই দায়ী। অসৎ পথে কখনো মহৎ উদ্দেশ্য বাস্তবায়ন সম্ভব হয় না। গণঅভ্যুত্থানই পারে কর্তৃত্ববাদী এই সরকারের পতন ঘটাতে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী সকল রাজনৈতিক, সামাজিক সাংস্কৃতিক শক্তির সম্মিলিত শক্তিই পারবে ভিশন মুক্তিযুদ্ধ ’৭১ বাস্তবায়নে। আমরা কমিউনিস্টরা এ ভিশন মুক্তিযুদ্ধ ’৭১ বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত ঘরে ফিরব না। একইদিন ফরিদপুর জেলা কমিউনিস্ট পার্টির উদ্যোগে জনতা ব্যাংক মোড়ে সিপিবির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও জেলা কমিটির সভাপতি রফিকুজ্জামান লায়েকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অপর এক জনসভায় বক্তব্য দেন সিপিবি সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, প্রেসিডিয়াম সদস্য ও বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক আবদুল্লাহ ক্বাফী রতন, কৃষক সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি প্রকৌশলী নিমাই গাঙ্গুলী, ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি মেহেদী হাসান নোবেল। জনসভাটি পরিচালনা করেন জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক অরুন শীল। কমরেড সেলিম তার বক্তৃতায় গণতান্ত্রিক অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম গড়ে তুলতে জনগণের প্রতি আহ্বান জানান। ২৯ নভেম্বর মাগুরার সমাবেশে বাংলাদেশের কমিউনিন্ট পার্টির (সিপিবি) সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম সরকারের উদ্দেশে বলেছেন, আগুন দিয়ে যেমন আগুন নেভানো সম্ভব নয়, তেমনি সাম্প্রদায়িকতা রুখতে হেফাজতকে লালন করে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়া সম্ভব নয়। সত্যিকারের উদার অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক দেশ গড়তে কৃষক শ্রমিক-মেহনতি মানুষের রাজনীতি প্রতিষ্ঠার আহ্বান জানান তিনি। তিনি বলেছেন, দেশের ৯৯ভাগ মানুষ আজ শোষিত। মুষ্টিমেয় ১ভাগ মানুষ অধিকাংশ সম্পদ শোষণ করছে। এই অপশক্তিই কারসাজি করে পেঁয়াজ ও চালসহ নিত্যপণ্যের মূল্য বৃদ্ধি করে মানুষের ভোগান্তি সৃষ্টি করছে। মাগুরা শহরের শহীদ সৈয়দ আতর আলী লাইব্রেরি মিলনায়তনে সিপিবি আয়োজিত সমাবেশে সংগঠনের জেলা সভাপতি বীরেন বিশ্বাসের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন সংগঠনের প্রেসিডিয়াম সদস্য আবদুল্লাহ আল ক্বাফী রতন, রফিকুজ্জামান লায়েক, কৃষক সমিতির সহ-সভাপতি প্রকৌশলী নিমাই গাঙ্গুলী, ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সভাপতি মেহেদী হাসান নোবেল। সমাবেশে সিপিবি সভাপতি বলেন, ‘সাম্প্রদায়িকতাকে মোকাবিলা করতে হবে ধর্মনিরপেক্ষতার আদর্শ নিয়ে। যারা মনে করে, অন্যায় দিয়ে অন্যায়কে মোকাবিলা করবে, তারা ভুল। এভাবে কখনো অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ে তোলা সম্ভব নয়।’

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..