‘হকার উচ্ছেদ করে এ সরকারও টিকতে পারবে না’

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email

একতা প্রতিবেদক : ‘হকারদের দীর্ঘদিনের ধারাবাহিক আন্দোলনের কারণে প্রধানমন্ত্রী তাদেরকে বসার নির্দেশনা দিয়েছেন কিন্তু প্রশাসন প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা না মেনে হকার উচ্ছেদ, দমন-পীড়ন-মামলা-হামলা-নির্যাতন করছে, এসব প্রশাসনের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অমান্য করার জন্য ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে আহ্বান জানান। তিনি আরো বলেন, পাকিস্তান আমল থেকে আজ পর্যন্ত হকার উচ্ছেদ করে কোনো সরকার টিকতে পারে নাই। আজ যদি হকার উচ্ছেদ করা হয় তাহলে এ সরকারও টিকতে পারবে না।’ গত ১৩ অক্টোবর সকাল ১১টায় সদরঘাট ভিআইপি গেটের সামনে বাংলাদেশ হকার্স ইউনিয়নের উদ্যোগে আয়োজিত এক বিক্ষোভ সমাবেশে এমনটাই বলেছেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র উপদেষ্টা শ্রমিকনেতা মনজুরুল আহসান খান। পুনর্বাসন ছাড়া হকার উচ্ছেদ বন্ধ, হকার ব্যবস্থাপনার জাতীয় নীতিমালা প্রণয়ন এবং হকারদের ওপর দমন-পীড়ন-নির্যাতন, হামলা-মামলার প্রতিবাদে অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি আব্দুল হাশিম কবির বক্তব্য রাখেন হকার্স ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সেকেন্দার হায়াৎ, গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক জলি তালুকদার, সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. জসিমউদ্দিন, কেন্দ্রীয় নেতা জহিরুল ইসলাম, কোতয়ালী থানার সভাপতি আব্দুল কাইয়ূম, সাধারণ সম্পাদক আনিছুর রহমান পাটোয়ারি, সূত্রাপুর থানার সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ আলী। সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী ঢাকা মহানগরে সকল জায়গায় হকার আছে পুরান ঢাকায়ও হকার থাকবে। সে নির্দেশনা অনুযায়ী হকাররা বসবে, প্রশাসন বাধা দিলে সম্মিলিতভাবে প্রতিরোধ করতে হবে। নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, হকার বসা নিয়ে কোন অনাকাক্সিক্ষত ঘটনা ঘটলে তার দায়-দায়িত্ব প্রশাসনকে নিতে হবে। কারণ হকাররা নিজের কর্মসংস্থান নিজেই সৃষ্টি করেছে তারা কাজ করে খেতে চায়, পরিবার-পরিজন নিয়ে বাঁচতে চায়। বাঁচার অধিকারে আঘাত করলে তার পরিণাম ভয়াবহ হবে। সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল সদরঘাট থেকে শুরু হয়ে কোতয়ালী থানা-ভিক্টোরিয়া পার্ক-ওয়াইজ ঘাট হয়ে ৪৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরের কার্যালয়ের সামনে শেষ হয়।
প্রথম পাতা
করোনা প্রসঙ্গ: দেশ-দুনিয়াকে বদলাতে হবে
‘বাম-গণতান্ত্রিক বিকল্প বলয় গড়ে তোলার কাজে তার অবদান অবিস্মরণীয় হয়ে থাকবে’
করোনাকালের অর্থনীতি, করোনাত্তোর অর্থনৈতিক পুনর্গঠন ও আগামী বাজেটে অগ্রাধিকার খাত কি হওয়া উচিৎ’ শীর্ষক মতবিনিময় সভা
বাণিজ্যিক স্বাস্থ্য ব্যবস্থার বদল ঘটিয়ে ‘গণস্বাস্থ্য ব্যবস্থা’ গড়ে তুলতে হবে
কোভিডের চিকিৎসা নিয়ে কোনোরকম ব্যবসা চলবে না
‘জাতীয় দুর্যোগ’ ঘোষণা করে চিকিৎসার সকল দায়িত্ব সরকারকে নিতে হবে
সরকার মানুষকে অনিশ্চিত গন্তব্যের দিকে ঠেলে দিচ্ছে
প্রতিদিনকার কোভিড মোকাবেলার মাঝে অর্থনীতির চাকা সচল করতে চীনের সর্বাত্মক প্রচেষ্টাঃ উদ্যোগ ও সাফল্য

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..