পাঁচ চিকিৎসক দিয়ে চলছে ৬ লাখ মানুষের সেবা

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
সিরাজগঞ্জ সংবাদদাতা : সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসক সংকট মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। ফলে মাত্র ৫ জন ডাক্তার দিয়ে চলছে উপজেলার ৬ লাখ মানুষের স্বাস্থ্যসেবা। শাহজাদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি ৩১ শয্যা থেকে ৫০ শয্যায় উন্নীত করা হলেও চিকিৎসক আর সেবিকার (নার্স) বেশিরভাগ পদ এখনও শূন্য। ফলে হাসপাতালের চিকিৎসাসেবা এখন মুখ থুবড়ে পড়েছে। সেবার মান তলানীতে এসে দাঁড়িয়েছে। জানা যায়, শাহজাদপুর উপজেলার ৬ লাখ মানুষের বিপরীতে মাত্র পাঁচ জন ডাক্তার দিয়ে চলছে এ হাসপাতালটি। ৩১৯ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের এ উপজেলায় রয়েছে একটি পৌরসভা, ১৩টি ইউনিয়ন। পাঁচজন ডাক্তার দিয়ে ৩৪৩টি গ্রামের প্রায় ছয় লাখ মানুষের চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে। যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন না হওয়ায় অধিকাংশ মানুষ কষ্ট করে উপজেলা সদর আসতে চান না। তাই অসুখে বিসুখে এলাকার ৮০ ভাগ মানুষ বাধ্য হয়ে স্থানীয় পল্লী চিকিৎসকের দ্বারস্থ হয়ে নানাভাবে প্রতারিত হচ্ছে। এদিকে সরকারি হাসপাতালের দৈন্যদশার কারণেই উপজেলার সর্বত্র ব্যাঙের ছাতার মত গজিয়ে উঠেছে বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিক। যদিও এসব হাসপাতাল ও ক্লিনিকের বিরুদ্ধে বিস্তর অভিযোগ রয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডাক্তার স্বল্পতার কারণে হাসপাতালের পাঁচজন এমবিবিএস ডাক্তার পালাক্রমে ডিউটি করে থাকেন। পাঁচ ডাক্তারের বিপরীতে রয়েছেন ১০ জন নার্স। এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার ও পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. জোবায়দা মেহের নাজ জানান, চিকিৎসকসহ জনবল সংকটের মধ্যেই হাসপাতাল থেকে কাঙ্খিত সেবা দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..