চীনে কমিউনিস্ট শাসনের ৭০ বছর পূর্তি

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email

একতা বিদেশ ডেস্ক : জাকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে কমিউনিস্ট শাসনের ৭০ বছর পূর্তি উদযাপন করছে চীন। ৭০ বছর আগে চীনে কমিউনিস্ট শাসনের শুরু হলে প্রত্যাশার চেয়ে অনেকটা অগ্রগতি হয়েছে সেখানকার অর্থনীতি। কমিউনিস্টরা রক্তাক্ত একটি গৃহযুদ্ধে জয় পাওয়ার পর ১৯৪৯ সালের ১ অক্টোবর মাও সে তুং বা চেয়ারম্যান মাও গণচীন প্রতিষ্ঠার ঘোষণা দিয়েছিলেন। সেই থেকে চীনের উন্নতি হতে থাকে অসাধারণ গতিতে। চীনের কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি মাও সে তুংয়ের প্রস্তাবে পুঁজিবাদী ও প্রাচীনকালের ধ্যান-ধারণা থেকে দূরে রাখতে এবং প্রকৃত সমাজতান্ত্রিক চিন্তা-ভাবনা সংরক্ষণের লক্ষ্যেই এক বিপ্লবের সূচনা ঘটে। এবং চিনে মাও সে তুংয়ের বিপ্লবের প্রধান শক্তি ছিল তাঁর বিশাল কৃষক সৈনিক বাহিনী। চিনে ঐতিহ্যগতভাবেই দেখা গেছে যে, কৃষকদের মাঝে প্রায়ই নানা প্রকার যুদ্ধ ও বিদ্রোহ চলে আসছিল। কিন্তু যখন মাওয়ের নেতৃত্বে এই বিপ্লবটি সফল হল তখন কৃষক সৈনিকদের সাথে শহুরে শ্রমিক, মধ্যবিত্ত ও ছোট ব্যবসায়ীরা মিলে একটি ঐক্যবদ্ধ শক্তিতে পরিণত হয়। পরবর্তীকালে শাসন ক্ষমতায় ধনী শ্রেণির আধিপত্য দূর করা এবং মেহনতি মানুষের ক্ষমতা পুনঃস্থাপনের লক্ষ্যে মাও সে তুং-এর নেতৃত্বে মহান সাংস্কৃতিক বিপ্লব পরিচালিত হয় (১৯৬৬-৭৬)। মাও সে তুং-এর সংগ্রামী পথ পৃথিবীর নিপীড়িত মানুষের কাছে পথ চলার আলোকবর্তিকা হয়ে রয়েছে। ১ অক্টোবর চীনে কমিউনিস্ট পার্টির শাসনের ৭০ বছর পূর্ণের দিনটি পালন করেছে বেইজিং। নানা অনুষ্ঠান, প্যারেড চলে দিনভর। পিপলস রিপাবলিকান অব চীনের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্?যাপনে সাজ সাজ রব ছিল কমিউনিস্ট দেশটিতে। নানা চড়াই-উতরাই পেরিয়ে আজকের অবস্থানে এসেছে চীন। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে তিয়েনআনমেন স্কয়ারে ট্যাংক, ক্ষেপণাস্ত্র, সামরিক বিমান ও সাঁজোয়া যানের মহড়াসহ সামরিক বাহিনীর কসরতের আয়োজন করেছে চীন। আগেই সামরিক শক্তি প্রদর্শনের উচ্চাভিলাষী পরিকল্পনার কথা ঘোষণা করেছেন প্রেসিডেন্ট শি চিন পিং। মহড়ায় ছিল ১৫ হাজার সেনা, ১৬০টি ফাইটার জেট, ৫৮০টি ট্যাংকার এবং অন্যান্য এমন কিছু অস্ত্র, যা আগে কখনো জনসমক্ষে দেখানো হয়নি।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..