বাঁশখালীতে বালুখেকোরা বেপরোয়া

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
চট্টগ্রাম সংবাদদাতা : চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার পুঁইছড়ি ছড়ায় বালুমহাল নাম দিয়ে ১৬টি পয়েন্টে মেশিন বসিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। এতে ছড়াটি ভাঙনের কারণে খালে পরিণত হয়ে ১৪টি বসতবাড়ি বিলীন হয়ে গেছে ইতোমধ্যেই। হুমকির মুখে পড়েছে পাহাড়ী এলাকার পরিবেশ ও বসতি। তাছাড়া দিন দিন উপজেলার বিভিন্ন ইউপিতে অবৈধ বালু উত্তোলনের সিন্ডিকেট বেপরোয়া হয়ে উঠছে। ফলে পাহাড়ের পাদদেশে ছড়ার দুই পাশে বসতি ভাঙ্গনের মাত্রাতিরিক্ত হারে বেড়েই চলেছে। অপরদিকে পাহাড়ী এলাকার পরিবেশ পড়েছে চরম হুমকির মুখে। এলাকাবাসীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে শনিবার সরেজমিনে পুঁইছড়ির বসিরা বাড়ি এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, বালুখেকোদের বেপরোয়া বালু উত্তোলনের ফলে ছড়ার উভয়ের বসতি ভেঙ্গে বিলীন হয়ে যাচ্ছে। উপজেলা প্রশাসন থেকে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা ১৪টি পয়েন্টের বালুমহালের মালিককে ৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা ও জব্দকৃত বালু নিলাম দেয়া হয়েছে। তবুও থামছে না মেশিন বসিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন ব্যবসা। চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক কার্যালয় থেকে নিলামকৃত বিএস খতিয়ান ৬২০ স্থান থেকে বালু উত্তোলনের জন্য ১৭ লাখ টাকা ব্যয়ে ইজারা প্রদান করা হয়। ইজারাকৃত জায়গাটি বর্তমানে ভরাট হয়ে বাজার হিসেবে চিহ্নিত রয়েছে। ইজারাদারগণ তাদের নির্দিষ্ট স্থান ত্যাগ করে ১ কি.মি. দূরবর্তী বিএস ১২৫১ ও ১২৫৪ দাগের জমি থেকে বালু উত্তোলন করছে। অবৈধভাবে পুঁইছড়ি ছড়া থেকে তোলা বালু প্রতিদিন ব্যবসায়ীরা প্রতি ট্রাক ২৫০০/২৬০০ টাকা দরে বিক্রি করছেন। এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন মুহূ বড় ধরনের সংঘষের আশঙ্কা রয়েছে। জানা যায়, পুঁইছড়ি ইউনিয়নের নাপোড়াছড়া ও পুঁইছড়িছড়া থেকে বালু ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেটের মাধ্যমে বালু মহাল সৃষ্টি করে অবৈধভাবে ছড়া থেকে বালু উত্তোলন করে নির্বিঘেœ ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। পুঁইছড়ি ইউনিয়নের পাহাড়ী এলাকায় সরকারিভাবে ৫-৬ বছর থেকে ছড়া থেকে বালু উত্তোলনের জন্য নির্দিষ্ট বিএস দাগ ৬২০ স্থানের ছড়া থেকে বালু উত্তোলনের জন্য নিলামে তোলা হয়। ইাজারাদার সরকারি নিয়মনীতিকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ১ কি.মি. দূরবর্তী স্থান বসিরা বাড়ির চিতাখোলা নামক স্থান থেকে ছড়ার ওপর ১৫/১৬টি মেশিন বসিয়ে পৃথক পৃথকভাবে ২২ জনের সিন্ডিকেটের মাধ্যমে বালুমহাল নাম দিয়ে বালু ব্যবসা শুরু করেন।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..