আমাজনের আগুন সারা বিশ্বের জন্য ক্ষতিকর : শাহ আলম

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email

রাজধানীর ঝিকাতলায় সমাবেশে বক্তব্য রাখছেন সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলম
একতা প্রতিবেদক : বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলম বলেছেন, আমাজনের ক্ষতিতে সারাবিশ্ব ক্ষতিগ্রস্ত হবে। আমাজানের এই অগ্নিকাণ্ড লুটেরাদের শোষণের ফল। গত ২৫ আগস্ট রাজধানীর ঝিকাতলা বাসস্ট্যান্ডে সিপিবি ধানমন্ডি থানা কমিটি আয়োজিত এক সমাবেশে তিনি একথা বলেন। এ সময় সিপিবি সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, আমাজন বনাঞ্চলের এই ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড পুরো দক্ষিণ আমেরিকা জন্য এক বিরাট পরিবেশগত বিপর্যয়। শুধু তাই নয়, এই অগ্নিকাণ্ড গোটা বিশ্বে পরিবেশ বিপর্যয়ের ক্ষেত্রে এক মারাত্মক মাত্রা যুক্ত করবে। ফলে বিষয়টি গোটা বিশ্বের ও সভ্যতার অস্তিত্ব রক্ষার ক্ষেত্রে ভয়াবহ আশঙ্কার বিষয় হয়ে উঠেছে। সিপিবি ধানমন্ডি থানা কমিটির সভাপতি শংকর আচাযের্র সভাপতিত্বে এতে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সিপিবি কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আহসান হাবিব লাবলু, সদস্য হাসান তারিক ও ঢাকা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ডা. সাজেদুল হক রুবেল। সভায় সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন গ্রিন ভয়েজ এর সভাপতি আলমগীর কবীর, নারীপক্ষ’র মনীষা মজুমদার, বাংলাদেশ যুব ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির ক্রীড়া সম্পাদক আসাদুজ্জামান আজিম। প্রসঙ্গত, বলসেনারোর নেতৃত্বাধীন ব্রাজিলের ক্ষমতাসীন প্রতিক্রিয়াশীল সরকারই বহুলাংশে এই বিপর্যয়ের জন্য দায়ী। বর্তমান চরম দক্ষিণপন্থি ও সাম্রাজ্যবাদের প্রতিভূ ব্রাজিল সরকার তাদের কায়েমী স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য পরিবেশ রক্ষার নীতি গ্রহণের বদলে আমাজন বনাঞ্চলকে বিভিন্ন বহুজাতিক কোম্পানির কাছে লুটপাটের জন্য তুলে দিয়েছে। যার ফল হিসেবে আজ এই ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ও পরিবেশগত বিপর্যয়ের ঘটনা ঘটেছে। ইভো মোরালেসের নেতৃত্বে প্রতিষ্ঠিত ল্যাটিন আমেরিকার সবচেয়ে দরিদ্র দেশ বলিভিয়ার বামপন্থি সরকার দেশটির সীমিত সামর্থ্য দিয়ে এই অগ্নি নির্বাপণ ও পরিবেশ রক্ষার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছে। একইসঙ্গে বলিভিয়ার সরকার তাদের প্রতিবেশী দেশগুলোকেও আমাজন বনাঞ্চলের আগুন নেভানোর কাজে শামিল হতে আহ্বান জানিয়েছে। আমাজনের এই ঘন বর্ষণ বনাঞ্চল দক্ষিণ আমেরিকার ৭.৪ মিলিয়ন বর্গকিলোমিটার এলাকা জুড়ে বিস্তৃত। যা ব্রাজিলের প্রায় ৬০ শতাংশ এলাকা, পেরু, বলিভিয়া, ইকুয়েডর, প্যারাগুয়ে, কলম্বিয়া, সুরিনাম, গ্যায়ানা এবং ফরাসি গায়ানা পর্যন্ত ছড়িয়ে আছে। এই বিরাট বনাঞ্চল প্রতিবছর এক বিলিয়ন টন সমপরিমাণ কার্বনডাই অক্সিজেন গ্যাস শোধন করে পরিশুদ্ধ অক্সিজেন গ্যাস নিঃসরণ করে। যে কারণে একে ‘পৃথিবীর ফুসফুস’ বলে অভিহিত করা হয়। তাই এই পরিবেশগত বিপর্যয় দক্ষিণ আমেরিকার পাশাপাশি বাংলাদেশ এবং গোটা ধরিত্রীকে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করবে।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..