ঢাবির হলে কর্মচারী নিয়োগে বাণিজ্যের অভিযোগ

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
একতা প্রতিবেদক : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) বেগম রোকেয়া হলে কর্মচারী নিয়োগে হল ছাত্র সংসদের সহসভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং হল প্রশাসনের দিকে আঙ্গুল তুলেছে কয়েক শিক্ষার্থী। এ সংক্রান্ত কয়েকটি অডিও রেকর্ডও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দিয়েছে তারা। শিক্ষার্থীরা বলছে, হলের কর্মচারী নিয়োগে এদের যোগসাজশে ২১ লাখ টাকা লেনদেন হয়েছে। এ তথ্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার পর শিক্ষার্থী ও কর্মচারীদের হুমকিও দেয়া হচ্ছে। অভিযোগকারী শিক্ষার্থীদের মধ্যে রোকেয়া হলের আবাসিক শিক্ষার্থী শ্রবণা শফিক দীপ্তি, সায়েদা আফরিন শাফি ও জয়ন্তী রেজার নাম জানা গেছে। এদিকে দুর্নীতির অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ও বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হলের সাবেক প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. বেগম আকতার কামালকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্য বিশিষ্ট এ কমিটি হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ অধিদফতর থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে কমিটিতে সহকারী প্রক্টর ড. লিটন কুমার সাহাকে সদস্য-সচিব এবং রোকেয়া হলের আবাসিক শিক্ষক মনিরা বেগমকে সদস্য হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয়। নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও পর্যালোচনা করে আগামী ৭ কার্যদিবসের মধ্যে সুপারিশসহ প্রতিবেদন দাখিলের জন্য কমিটিকে অনুরোধ করা হয়েছে। প্রতিবেদন না পাওয়া পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট নিয়োগ কার্যক্রম বন্ধ থাকবে বলেও জানানো হয়।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..