‘ন্যায় বিচার না থাকায় রতন সেন হত্যার বিচার হয়নি’

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email

কমরেড রতন সেনের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে খুলনার হাদিস পার্কে জনসভায় বক্তব্য রাখছেন সিপিবি সভাপতি সেলিম
একতা প্রতিবেদক : বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেছেন, দেশে আইনের শাসন ও ন্যায় বিচার না থাকার কারণে কমরেড রতন সেন হত্যার বিচার হয়নি। তেমনি কোনো হত্যাকাণ্ড, ধর্ষণ, নিপীড়নের বিচার হচ্ছে না। গত ৩১ জুলাই শহীদ হাদিস পাকে সিপিবি খুলনা জেলা কমিটির সাবেক সভাপতি রতন সেনের ২৭তম মৃত্যুবার্সিকী উপলক্ষে আয়োজিত এক জনসভায় তিনি এসব কথা বলেন। সিপিবি খুলনা জেলা কমিটি এ জনসভার আয়োজন করে। এতে সিপিবি খুলনা জেলা সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সদস্য ডা. মনোজ দাশের সভাপতিত্বে এবং মহানগর সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. বাবুল হাওলাদারের পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন,পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য এস এ রশীদ, অরুণা চৌধুরী, জেলা সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এম এম রুহুল আমিন, মহানগর সভাপতি এইচ এম শাহাদাৎ, জেলা সহ-সাধারণ সম্পাদক শেখ আব্দুল হান্নান, যুব ইউনিয়নের জেলা সাধারণ সম্পাদক জয়ন্ত মুখার্জী, ছাত্র ইউনিয়নের জেলা সভাপতি উত্তম রায় প্রমুখ। এসময় সিপিবি সভাপতি আরো বলেন, জাতির সামনে আজ মূল সমস্যাগুলো হলো লুটপাট, গণতন্ত্রহীনতা, মৌলবাদ, সাম্রাজ্যবাদ। মুক্তিযদ্ধের চেতনার কথা বলে সাম্রাজ্যবাদী শক্তির সঙ্গে হাত মিলিয়ে স্বৈরাচারী ব্যবস্থাকে কায়েম করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দেশ গড়া যায় না। বর্তমান সরকার গণতন্ত্রকে ভূলুণ্ঠিত করেছে। একতরফা নির্বাচন দিয়ে রাতে ভোট কেটে ১৫৪ আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার ধূয়া তুলে নির্বাচন বা সরকারকে বৈধ করা যায় না। সেলিম বলেন, একদিকে ধানের দাম কমিয়ে কৃষককে সর্বশান্ত করা হচ্ছে; অন্যদিকে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে নিম্ন আয়ের মানুষের নাভিশ্বাস উঠছে। শিল্পকারখানা বন্ধ করে শ্রমিকদের বেকার করা হচ্ছে। বেকারত্বের মিছিলে প্রতিদিন নতুন নতুন মুখ যুক্ত হচ্ছে। উন্নয়নের নামে সীমাহীন লুটপাট, দুর্নীতি করে দেশের অর্থনৈতিক ব্যবস্থাকে পঙ্গু করা হচ্ছে। পরিবেশ প্রকৃতি ধ্বংস করা হচ্ছে। প্রাকৃতিক বন সুন্দরবন আজ ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে। তিনি বলেন, রামপালের তাপবিদ্যুৎ প্রকল্প যদি পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর না হয় তবে কেন প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর বা সেনানিবাসের পাশে করা হচ্ছে না। দেশে আইন শাসন, ন্যায় বিচার না থাকার কারণে কমরেড রতন সেন হত্যার যেমন বিচার হয়নি, তেমনি কোনো হত্যাকাণ্ড, ধর্ষণ, নিপীড়নের বিচার হচ্ছে না। তিনি এ ব্যবস্থাকে পরিবর্তন করতে বাম প্রগতিশীল রাজনৈতিক শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান। সাথে সাথে সাধারণ জনগণকেও এ আন্দোলনের সঙ্গে সামিল হওয়ার আহ্বান জানান। জনসভা শেষে নগরীতে বিশাল এক লাল পতাকার বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। এর পূর্বে সকালে ডিসি অফিসের সামনে প্রয়াত নেতার শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে সিপিবি, ওয়ার্কার্স পার্টি, ছাত্র ইউনিয়ন, যুব ইউনিয়ন, টিইউসি, উদীচী, রতন সেন পাবলিক লাইব্রেরী, খেলাঘর আসর, কৃষক সমিতি, ক্ষেতমজুর সমিতিসহ বিভিন্ন সংগঠন পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন। কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) কেন্দ্রীয় সম্পাদকমণ্ডলীর সাবেক সদস্য, খুলনা জেলা সভাপতি, বিশিষ্ট মার্কসবাদী তাত্ত্বিক, কৃষক-জননেতা কমরেড রতন সেনের হত্যাকাণ্ডের ২৭তম মৃত্যুবার্ষিকীতে হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত এবং এর নেপথ্যের অপশক্তিকে খুঁজে বের করা ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করা হয়েছে। গত ৩১ জুলাই সিপিবি কার্যালয়ে কমরেড রতন সেন-এর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর পর অনুষ্ঠিত সংক্ষিপ্ত সমাবেশে পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলম বলেন, কমরেড রতন সেনের হত্যার বিচার না হওয়ায় এদেশের হত্যাকারীরাই উৎসাহিত হয়েছে। সাম্প্রদায়িক ও দখলদার অপশক্তি বেড়ে উঠেছে। তিনি বলেন, হত্যাকারীদের ক্ষমা নেই। এই দুর্বৃত্তায়িত চক্রকে প্রতিহত করে শোষণমুক্ত সমাজ গঠন করার মধ্য দিয়ে এই হত্যার বদলা নেওয়া হবে। এসময় সিপিবির কেন্দ্রীয় সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স, কোষাধ্যক্ষ মাহবুব আলম, সিপিবি নেতা মোসলেম উদ্দিন, নুরুজ্জামান, নুরুল ইসলাম গাজী, আরিফুল ইসলাম নাদিমসহ অন্যান্য নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..