কৃষকের লোকসান হাজার কোটি টাকা

সরকারি দরে ধান কেনার দাবি কৃষক সমিতির

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email

ঢাকা
একতা প্রতিবেদক : সরকার নির্ধারিত এক হাজার ৪০ টাকা মূল্যে কৃষকের কাছ থেকে সরাসরি ধান কেনার দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ কৃষক সমিতি। নেতারা এজন্য ইউনিয়ন পর্যায়ে ‘সরকারি ক্রয়কেন্দ্র’ খোলারও দাবি জানান। এই দাবিতে কৃষক সমিতির উদ্যোগে গত ২৩ মে সারা দেশে জেলায় জেলায় জেলা প্রশাসকের (ডিসি) ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কার্যালয় ঘেরাও কর্মসূচি পালন করেছে কৃষক সমিতি। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে সংবাদদাতাদের পাঠানো প্রতিবেদন: রংপুর : কৃষক সমিতির রংপুর জেলার সাধারণ সম্পাদক আলতাফ হোসেন, সিপিবি’র প্রেসিডিয়াম সদস্য শাহীন রহমান, কৃষকনেতা আব্দুল জলিল সরকার, আফজালুর রহমান জাকির হোসেন প্রমুখের নেতৃত্বে কৃষকদের মিছিল ধান ক্রয়ের দাবিতে জেলা প্রশাসক

চট্টগ্রাম
কার্যালয় ঘেরাও করে। নেতৃবৃন্দ জেলা প্রশাসকের সঙ্গে দেখা করে অবিলম্বে কৃষকদের কাছ থেকে সরকার নির্ধারিত ১, ০৪০ টাকা মণ দরে ধান ক্রয়ের দাবি জানান। বগুড়া : কৃষক সমিতি বগুড়া জেলা কমিটির ডাকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে কৃষক বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে ইউনিয়ন পর্যায়ে ক্রয় কেন্দ্র চালু করে খোদ কৃষকের কাছ থেকে সরকার নির্ধারিত ১, ০৪০ টাকা মণ দরে ধান ক্রয়ের আহ্বান জানান। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন– কৃষক সমিতির বগুড়া জেলার সভাপতি সন্তোষ কুমার পাল, সাধারণ সম্পাদক হাসান আলী শেখ, সিপিবি সভাপতি জিন্নাতুল ইসলাম, আমিনুল ফরিদ, সন্তোষ সাহা, নাদিম মাহমুদ, শ্রীকান্ত মাহাতো প্রমুখ। নওগাঁ : জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে

পঞ্চগড়
কৃষক অবস্থান কর্মসূচি পালিত হয়। বক্তব্য রাখেন মনসুরুর রহমান, অ্যাড. মহসীন রেজাসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। কিশোরগঞ্জ : ধানের দাম মণ প্রতি ১, ০৪০ টাকা খোদ কৃষককে দেওয়ার দাবিতে কৃষক সমিতির উদ্যোগে জেলা শহরে বিক্ষোভ মিছিল শেষে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে কৃষক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন– জেলা কমিটির সভাপতি ডা. এনামুল হক ইদ্রিস, সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা কামাল নান্দু, জেলা সিপিবি সভাপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম, শ্রমিকনেতা আব্দুর রহমান, শিক্ষকনেতা ফরহাদ উদ্দিন ভূঁইয়া প্রমুখ। পটুয়াখালী : কৃষক সমিতির কেন্দ্রীয় নেতা মোতালেব মোল্লার নেতৃত্বে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়েল সামনে কৃষক বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন–

দিনাজপুর
কৃষকনেতা সুভাষ চন্দ্র নাগ, ক্ষেতমজুর নেতা শাহাবুদ্দিন আহমেদ, তৈয়ব আলী ফরিদ, সমীর কুমার কর্মকার প্রমুখ। সমাবেশ শেষে নেতৃবৃন্দ জেলা প্রশাসকের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে আহ্বান জানান। যশোর : ইউনিয়ন পর্যায়ে ক্রয়কেন্দ্র খোলা ও সরকার নির্ধারিত ১, ০৪০ টাকা মণ দরে ধান ক্রয়ের দাবিতে কৃষকনেতা মাহবুবুর রহমান মজনুর নেতৃত্বে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে কৃষক বন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। বক্তব্য রাখেন কৃষক নেতা আবুল হোসেন। কুমিল্লা : জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে কৃষকনেতা সুজাত আলী সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অবস্থান কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন, ক্ষেতমজুর নেতা পরেশ করসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। সভা পরিচালনা করেন কৃষকনেতা সুধাংশু কুমার

গাইবান্ধা
নন্দি। ব্রাহ্মণবাড়ীয়া : সরকার নির্ধারিত ১, ০৪০ টাকা মণ দরে কৃষকের ধান ক্রয় ও ইউনিয়ন পর্যায়ে ক্রয় কেন্দ্র চালুর দাবিতে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে কৃষক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। কৃষক নেতা এম.এ. রকিবের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় নেতা সাজিদুল ইসলাম, অ্যাড. সৈয়দ মোহাম্মদ জামাল, আসমা খানম, শাহ নূর ভূঁইয়া, শাজাহান শেখ, আল-মামুন প্রমুখ। সুনামগঞ্জ : কৃষকনেতা চিত্তরঞ্জন তালুকদার ও নিরঞ্জন দাস খোকনের নেতৃত্বে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালিত হয়েছে। ফরিদপুর : জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে প্রবীণ কৃষকনেতা কানাই গাঙ্গুলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অবস্থান কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন– কেন্দ্রীয় কৃষক সমিতির

যশোর
কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি আতাউর রহমান কালু, সুধীন সরকার মঙ্গল, হাফিজুল ইসলাম প্রমুখ। সমাবেশে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন সিপিবি প্রেসিডিয়াম সদস্য রফিকুজ্জামান লায়েক। ঢাকা : ঢাকা জেলার নবাবগঞ্জ উপজেলায় কৃষক সমিতির উদ্যোগে সরকার নির্ধারিত মূল্যে ধান ক্রয়ের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা কমিটির সভাপতি আব্দুল মান্নানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাধারণ সম্পাদক আবিদ হোসেন, উপজেলা কমিটির সহ-সাধারণ সম্পাদক সিকিম আলী মেম্বার, কৃষকনেতা আব্দুস সালাম, অলিউল্লাহ বাবুল। খুলনা: কৃষক সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির আহ্বানে দেশব্যাপী ধানের লাভজনক দাম, প্রতি ইউনিয়নে সরকার নির্ধারিত ১, ০৪০ টাকা দরে খোদ কৃষকের কাছ থেকে ক্রয়ের

খুলনা
দাবিতে খুলনায় কৃষক সমিতি খুলনা জেলা কমিটির উদ্যোগে কৃষকরা বেলা ১২টা থেকে ২টা পর্যন্ত ডিসি অফিসের সামনের রাস্তা বন্ধ করে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে। অবস্থান কর্মসূচিপূর্বে জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা শত শত কৃষকরা লাল পতাকা ও বিভিন্ন দাবি সম্বলিত প্লাকার্ড নিয়ে শহরের বিভিন্ন রাস্তায় মিছিল করে। কৃষক নেতা শেখ হান্নানের সভাপতিত্বে এবং সংগঠনের জেলা সাধারণ সম্পাদক এস এ রশীদের পরিচালনায় সমাবেশে বক্তৃতা করেন–সিপিবি খুলনা জেলার সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. রুহুল আমিন, বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক কাজী দেলোয়ার হোসেন, সিপিবি নগর সভাপতি এইচ এম শাহাদৎ, বাসদ-এর জেলা সমন্বয়ক জনার্দন দত্ত নাণ্টু, কৃষক সমিতির মন্মথ বিশ্বাস, অরুণা চৌধুরী, কিশোর

কিশোরগঞ্জ
রায়, অধ্যাপক নিহার গোলদার, শিশির সরকার, সাহিদুর ইসলাম, মুরারী সরকার, পূর্ণেন্দু বিশ্বাস, জাকির হোসেন, প্রদর্শক পূর্ণেন্দু বিশ্বাস, এ্যাড. প্রীতিষ মণ্ডল, ক্ষেতমজুর সমিতির সভাপতি এ্যাড. চিত্তরঞ্জন গোলদার, সাধারণ সম্পাদক অশোক সরকার, গণতান্ত্রিক আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. সন্দীপ রায়, ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান মোল্যা, শ্রমিকনেতা এস এম চন্দন, উদীচী’র জেলা নেতা ফারহাদ হোসেন মিটন, খেলাঘর আসরের সাধারণ সম্পাদক সাকিব হাসান, যুব ইউনিয়নের খুলনা জেলা সভাপতি এ্যাড. নিত্যানন্দ ঢালী, ছাত্র ইউনিয়নের জেলা সভাপতি উত্তম দাস, বিএল কলেজের ছাত্র নেতা রকি বিশ্বাস প্রমুখ। চট্টগ্রাম: বাংলাদেশ কৃষক সমিতি কেন্দ্রীয় কমিটি

মাদারীপুর
ঘোষিত বিক্ষোভ দিবসে ২৩শে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব চত্ত্বরে আয়োজিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন কৃষক নেতা আবদুল নবী। বক্তব্য রাখেন, কৃষক নেতা পুলক কুমার দাশ, কামাল সাত্তার চৌধুরী, ফরিদুল ইসলাম, স্বপন দত্ত, তাজুল মুল্লুক অনুপম বড়ুয়া পারু, শওকত আলী। প্রেস ক্লাবের সমাবেশ শেষে ধানের লাভজনক মূল্যের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে অবস্থান কর্মসূচির মাধ্যমে শেষ হয়। গাইবান্ধা : ইউনিয়ন পর্যায়ে ক্রয় কেন্দ্র খুলে লাভজনক দামে কৃষকের কাছ থেকে সরাসরি ধান ক্রয়ের দাবিতে বাংলাদেশ কৃষক সমিতি, গাইবান্ধা জেলা কমিটির উদ্যোগে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান কর্মসূচী পালিত হয়েছে। ২৩ মে সকাল ১১টায়

মানিকগঞ্জ
শহরের ১নং রেলগেট থেকে মিছিল নিয়ে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে ধান ভর্তি বস্তা নিয়ে অবস্থান করে। কৃষক সমিতি গাইবান্ধা জেলা সভাপতি সুভাষ শাহ রায়ের সভাপতিত্বে প্রায় দুই ঘন্টাব্যাপী অবস্থান চলাকালে বক্তব্য রাখেন জেলা কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি মিহির ঘোষ, জেলা কৃষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ছাদেকুল ইসলাম, কৃষক নেতা তাজুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর মাস্টার, জাহাঙ্গীর আলম মন্ডল, এছাড়া সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন এ্যাডভোকেট মুরাদ জামান রব্বানী, ক্ষেতমজুর সমিতির জেলা যুগ্ম আহবায়ক তপন দেবনাথ, ছাত্র ইউনিয়ন জেলা সংসদের সাধারণ সম্পাদক ওয়ারেছ সরকার প্রমুখ। ময়মনসিংহ: বাংলাদেশ কৃষক সমিতি ময়মনসিংহ জেলা কমিটির উদ্যোগে গত ২৩ মে পুলিশী বাধা অতিক্রম করে ধানের

মৌলভীবাজার
ন্যায্য মূল্যের দাবিতে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন কৃষক সমিতি ময়মনসিংহ জেলা কমিটির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আবুল হাসেম। সভা পরিচালনা করেন কৃষক সমিতি ময়মনসিংহ জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন কৃষক সমিতি জেলা কমিটির নেতা ফয়জুর রহমান, সদর উপজেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক কৃষক নেতা নূরুজ্জামান, ক্ষেত মজুর সমিতি ময়মনসিংহ জেলা কমিটির নেতা হারুন আল বারী, কমিউনিস্ট পার্টি ময়মনসিংহ জেলা কমিটির সভাপতি অ্যাড. এমদাদুল হক মিল্লাত, কমিউনিস্ট পার্টি কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মনিরা বেগম অনু। মৌলভীবাজার: ন্যায্যমূল্যের ভিত্তিতে কৃষকদের কাছ থেকে সরাসরি ধান

ময়মনসিংহ
ক্রয় ও মিল মালিকদের কাছ থেকে চাল ক্রয় বন্ধের দাবিতে মৌলভীবাজারে বিক্ষোভ মিছিল ও অবস্থান কর্মসূচি করেছে বাংলাদেশ কৃষক সমিতি মৌলভীবাজার জেলা কমিটি। গত ২৩ মে দুপুরে শহরের চৌমোহনা চত্তর থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে ঘণ্টাব্যাপি অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন তারা। কর্মসূচিতে সংহতি প্রকাশ করে হাওড় বাঁচাও, কৃষি বাচাঁও, কৃষক বাচাঁও সংগ্রাম পরিষদ, কমিউনিস্ট পার্টি ও বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন। জেলা কৃষক সমিতির সভাপতি আব্দুল লতিফের সভাপতিত্বে ও জহর লাল দত্তের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন হাওড় বাঁচাও, কৃষি বাচাঁও, কৃষক বাচাঁও সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি সিরাজ উদ্দিন আহমেদ বাদশা, কমিউনিস্ট পার্টি

রাজবাড়ী
জেলা কমিটিরি সাধারণ সম্পাদক নিলিমেষ ঘোষ বলুসহ প্রান্তিক কৃষকরা। মাদারীপুর: প্রতিটি ইউনিয়নে সরকারি ক্রয় কেন্দ্র চালু করে সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে ১ হাজার ৪০ টাকা মণ দরে ধান ক্রয়ের দাবীতে কৃষক সমাবেশ করেছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি ও বাংলাদেশ কৃষক সমিতি মাদারীপুর জেলা শাখা। গত ২৩ মে সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে এই মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন কৃষক সমিতি মাদারীপুর জেলা শাখার সভাপতি হাজী রহমত উল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, সহ-সম্পাদক কুদ্দুস ফরাজী, কৃষক ও ক্ষেতমজুর সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, সিপিবি মাদারীপুর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান সানু, জেলা রিকশা শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি সরোয়ার মোল্লা,

বগুড়া
উদীচী মাদারীপুর জেলা সংসদের সাধারণ সম্পাদক আলাউদ্দিন এলিন। রাজবাড়ী: খোদ কৃষকের কাছ থেকে ১০৪০ টাকা মণ দরে ধান কিনা, প্রতিটি ইউনিয়নে সরকারি ক্রয়কেন্দ্র চালু করা, মিল মালিকদের প্রতারণা থেকে রেহাই পাওয়াসহ ১২ দফা দাবিতে রাজবাড়ীতে মানবন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে বাংলাদেশ কৃষক সমিতি রাজবাড়ী জেলা শাখা। গত ২২ মে সকালে বাংলাদেশ কৃষক সমিতি রাজবাড়ী জেলা শাখা প্রেস ক্লাবের সড়কে ওই মানববন্ধন কর্মসুচীর আয়োজন করে। মানবন্ধন কর্মসুচীতে বাংলাদেশ কৃষক সমিতি রাজবাড়ী জেলা শাখার সভাপতি আব্দুস সাত্তার মিয়ার সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক শুকুমার সরকার, সিপিবি রাজবাড়ী শাখার সভাপতি আব্দুস সামাদ মিয়া, কৃষক সমিতি গোয়ালন্দ উপজেলার সাধারণ সম্পাদক কারী

রংপুর
মো. শাহাবুদ্দিন, পাংশা উপজেলার সভাপতি ডা. তোফাজ্জেল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াছ খান, ক্ষেতমজুর সমিতি রাজবাড়ীর আহ্বায়ক আবুল কালাম, লিটন চক্রবর্তী, আব্দুল তালিম বাবু প্রমুখ বক্তৃতা করেন। মানিকগঞ্জ : ‘কৃষি বাচাঁও কৃষক বাচাঁও দেশ বাচাঁও ধানসহ ফসলের লাভজনক দাম চাই, আর করব না ধান চাষ দেখবি তোরা কি খাস, প্রতি ইউনিয়নে ক্রয় কেন্দ্র চালু কর, ধানের মান যাচাইর নামে কৃষক হয়রানি বন্ধ কর’ এই ধরনের বিভিন্ন স্লোগানকে সামনে রেখে বাংলাদেশ কৃষক সমিতির কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে মানিকগঞ্জ জেলা কমিটি গত ২৩ মে দুপুর ১২টা থেকে ১ টা পর্যন্ত মানিকগঞ্জ কোর্ট চত্ত্বর থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে শহর প্রদক্ষিণ করে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সমানে সংহতি সমাবেশ

পটুয়াখালী
ও স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। সংহতি সমাবেশে জেলা কৃষক সমিতির কার্যকরি সভাপতি অধ্যাপক আবুল ইসলাম শিকদার এর সভাপতিত্ব্ েসংগঠনের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলামের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কৃষক সমিতির কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি অ্যাড. আজাহারুল ইসলাম আরজু, জেলা ক্ষেতমজুর সমিতির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা অ্যাড. মিজানুর রহমান হযরত, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নান, কৃষক নেতা দুলাল বিশ্বাস, ছাত্র ইউনিয়ন সভাপতি আনোয়ার হোসেন দুর্জয়। এছাড়াও সংহতি জ্ঞাপন করেন সিপিবির জেলা সভাপতি নুরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মজিবর রহমান মাস্টার, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদ এর সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আফজাল হোসেন খান জকি, অ্যাড. রওশন আলম প্রমুখ।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..