সাতক্ষীরায় খাল খননে অনিয়মের অভিযোগ

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
সাতক্ষীরা সংবাদদাতা : ক্ষুদ্র সেচ উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বাঁশদহা ইউনিয়নে দুই কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের খাল খনন করছে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশনের (বিএডিসি) সেচ বিভাগ। কিন্তু খাল খননকাজে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ এনে সম্প্রতি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের এক্সক্যাভেটর আটকে দিয়েছে গ্রামবাসী। যদিও বিএডিসির পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, কোনো অনিয়ম পাওয়া গেলে পুনরায় ভালোভাবে খালটি খনন করা হবে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, চলতি অর্থবছরে বৃহত্তর খুলনা যশোর জেলার ক্ষুদ্র সেচ উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বাঁশদহা ইউনিয়নে দুই কিলোমিটার খাল খননের প্রকল্প হাতে নেয় বিএডিসি। এ কাজে বরাদ্দ দেয়া হয় সাড়ে ১৮ লাখ টাকা। বাগেরহাটের মোল্লাহাট এলাকার ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান আকাশ এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী ফিরোজ মোল্লা এ কাজের টেন্ডার পান। এরপরই কার্যাদেশ পেয়ে তিনি কাজ শুরু করেন। নির্দেশ অনুযায়ী কাওনডাঙ্গা সেতু থেকে দুই কিলোমিটার দক্ষিণ পাশে এ খাল খননের কথা। কার্যাদেশে উল্লেখ করা হয়, খালের উপরে ৪০ ফুট, তলদেশে ১৪ ফুট ও গড়ে ৫ ফুট গভীর করে খালটি খনন করতে হবে। স্থানীয় গ্রামবাসীর অভিযোগ, খনন শুরুর সময় খালে পানি ছিল। এখনো পানি রয়েছে। এ সুযোগে নামমাত্র খনন দেখিয়ে ঠিকাদার এলাকা ছাড়ার পরিকল্পনা করছিলেন। পানি সেচ না করেই খালের দুই পাশ থেকে কিছুটা মাটি কেটে পাশেই ফেলে রাখা হয়েছে। এতে খাল খননের সুফল নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছে তারা। বাঁশদহা ইউপি চেয়ারম্যান এসএম মোশাররফ হোসেন বলেন, প্রকৃতপক্ষে খাল খননের নামে হরিলুট করা হয়েছে। যে খালে পানি থাকে, সে খাল কীভাবে খনন হয়? তাছাড়া যতটা খনন করার কথা, তা করা হয়নি। খুব বেশি হলে ৩ লাখ টাকার কাজ হয়েছে। আমি নিজেই এ অনিয়মের প্রতিবাদ করেছি।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..