চাকরি স্থায়ী করার দাবিতে রাজপথে শিক্ষকরা

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
একতা প্রতিবেদক : চাকরি স্থায়ী করার দাবিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সেকেন্ডারি এডুকেশন কোয়ালিটি অ্যান্ড অ্যাকসেস এনহান্সমেন্ট প্রজেক্ট (সেকায়েপ) প্রকল্পের অধীন অতিরিক্ত শ্রেণি শিক্ষকেরা (এসিটি) অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন। গত ৩ ফেব্রুয়ারি থেকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এই অবস্থান কর্মসূচি শুরু করেন ইংরেজি, গণিত ও বিজ্ঞানের শিক্ষকরা। এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ এসিটি অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি কৌশিক চন্দ্র বর্মণ বলেন, লিখিত প্রজ্ঞাপন না দেওয়া পর্যন্ত অবস্থান কর্মসূচি চালিয়ে যাবো আমরা। আমাদের দাবি, নিয়মিত শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ দিতে হবে। ঝরে যাওয়া শিক্ষার্থী রোধ করতে এসে আমরা নিজেরাই ঝরে পড়ছি। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে প্রধানমন্ত্রী আমাদের নিয়োগ দিয়েছিলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কার্যালয় থেকে সুপারিশ করা হয়েছিল। সে সুপারিশ উপেক্ষা করে আমাদের নিয়োগ বাস্তবায়ন হচ্ছে না। ১৩ মাসের বকেয়া বেতনসহ স্কুলে নিয়মিত শিক্ষক হিসেবে নিজ নিজ কর্মস্থানে ফিরে যেতে চাই আমরা। বিশ্বব্যাংক ও বাংলাদেশ সরকারের যৌথ অর্থায়নে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের নিয়োগপ্রাপ্ত সেকায়েপ প্রকল্পের অধীনে পাঁচ হাজার ২০০ অতিরিক্ত শ্রেণিশিক্ষক ২০১৫ সাল থেকে দুই হাজার ১০০ প্রতিষ্ঠানে বিষয়ভিত্তিক ইংরেজি, গণিত ও বিজ্ঞান বিষয়ে অত্যন্ত দক্ষতা, নিষ্ঠা ও সফলতার সঙ্গে পাঠদান করছেন। গত ৩১ ডিসেম্বর সেকায়েপ প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হলে এসিটিদের নতুন প্রকল্পে স্থায়ী করার জন্য নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানে পাঠদান চালিয়ে যাওয়ার কথা বলেছিল সরকার। শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে এমপিওভুক্তির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে তারা শুনলেও সে বিষয়ে কোনো অগ্রগতি তারা দেখতে পাচ্ছেন না। এজন্য বাধ্য হয়েই রাজপথে নেমেছেন তারা। সরকারের বেশ কয়েকটি সূত্র জানাচ্ছে, সেকায়েপ এবং সেসিপের আওতায় নিয়োগকৃত অতিরিক্ত শ্রেণিশিক্ষকদের এমপিওভুক্তির বিষয়ে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। গত ১১ জুলাই মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত এক সভায় মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের সেকায়েপ ও সেসিপ প্রকল্পের শিক্ষকদের এমপিওভুক্তিকরণের সম্ভাব্য শর্তসহ একটি পূর্ণাঙ্গ প্রস্তাব নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। মাউশি থেকে গত ৩০ আগস্ট জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের কাছে চিঠিতে জেলা ও উপজেলাভিত্তিক নিয়োগকৃত সেকায়েপের অতিরিক্ত শ্রেণিশিক্ষক এবং সেসিপ প্রকল্পের রিসোর্স টিচারদের তালিকা অধিদফতরে পাঠানোর জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..