একুশ, মাথা নত না করা

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
একতা প্রতিবেদক : ফেব্রুয়ারি মাস মানেই রক্ত দিয়ে কেনা ভাষার মাস। বাঙালির আত্মপরিচয়ের মাস। চেতনায় জাগ্রত হয়ে প্রতিটি বাঙালিকে দৃপ্ত শপথ নেয়ার মাস। ১৯৫২ সালের এ মাসের ২১ তারিখেই সালাম, রফিক, জব্বার ও বরকতেরা বুকের তাজা রক্ত ঢেলে দিয়ে পাকিস্তানি জান্তার থাবা থেকে মায়ের মুখের ভাষাকে রক্ষা করেছিলেন। তাদের এই মহান আত্মত্যাগের মাধ্যমেই আজ বাঙালি তার মায়ের ভাষায় কথা বলতে পারছে। কবি কবিতা লিখছেন। শিল্পী গান গাইছে। ১৯৫২ সালের মহান ভাষা আন্দোলনের মধ্য দিয়ে যে অধিকার সচেতনতা সৃষ্টি হয়, তাহারই প্রতিফলন দেখতে পাওয়া যায় ১৯৫৪ সালের যুক্তফ্রন্ট নির্বাচনে। পরবর্তীতে সামরিক স্বৈরাচার এবং শোষণ বঞ্চনাবিরোধী আন্দোলনের প্রতিটি পর্যায়ে বাঙালির প্রাণে শক্তি ও সাহস জুগিয়েছে ৫২-এর জাগরণ। ১৯৬২ সালের শিক্ষা আন্দোলন, ঐতিহাসিক ৬ দফা ও ১১ দফার সংগ্রাম, আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলাবিরোধী আন্দোলন ঊনসত্তরের গণঅভ্যূত্থান, সত্তরের নির্বাচনে জনতার রায়, একাত্তরের অসহযোগ এইভাবে ধাপে ধাপে পরিণতি লাভ করে বাঙালির স্বাধিকার সংগ্রাম। স্বাধিকারের দাবি রূপান্তরিত হয় স্বাধীনতার সংগ্রামে। নয় মাসব্যাপী রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে অর্জিত হয় স্বাধীনতা। ১৯৫২ সালের আন্দোলন মাতৃভাষার মর্যাদা রক্ষার জন্য সূচিত হলেও এর মূলগত চেতনাটি ছিলো আত্মমর্যাদাবোধ ও আপন অধিকার। মাতৃভাষা বাংলার জন্য বাঙালির রক্তে রচিত হয় একুশের যে সোপান, আজ এটি বিশ্বময় সকল ভাষা গোষ্ঠীর মাতৃভাষার মর্যাদার প্রতীক হয়ে উঠেছে। জাতিসংঘ একুশে ফেব্রুয়ারিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের স্বীকৃতি দিয়েছে। বিশ্বে বর্তমানে প্রচলিত ভাষার সংখ্যা ৬ শতাধিক, মতান্তরে ৭ হাজার। এইসব ভাষার অনেকগুলিরই নিজস্ব বর্ণমালা নাই। আবার অনেক ভাষা বিলুপ্ত হয়েছে কিংবা হারিয়ে যাবার উপক্রম হয়েছে। মহান একুশে ফেব্রুয়ারি নিঃসন্দেহে বিশ্বের প্রতিটি জাতি-গোষ্ঠীর নিজস্ব ভাষার অধিকার ও সুরক্ষার সংকল্পদীপ্ত দিবস। বস্তুত মাতৃভাষার সুরক্ষা, বিকাশ এবং ইহার অবাধ অনুশীলনের অধিকার ছাড়া কোনো জাতির অগ্রসরতার পথ প্রশস্ত হতে পারে না। এর মানে এই নয় যে মানুষ মাতৃভাষা ভিন্ন অন্য কোনো ভাষা শিখবে না বা চর্চা করবে না। বিশ্বায়নের এই যুগে এমনটি চিন্তাও করা যায় না। প্রয়োজন অনুযায়ী অন্যান্য ভাষাও শিখতে হবে। তবে বাঙালি হিসেবে আমাদের এই বিষয়টি দৃঢ় চিত্তে লালন করতে হবে একুশ মানেই আমাদের মাথা নত না করার ইতিহাস।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..