চট্টগ্রামে সাম্রাজ্যবাদবিরোধী সংহতি দিবস পালন

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
সাম্রাজ্যবাদবিরোধী সংহতি দিবস স্মরণে গত ১ জানুয়ারি বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন চট্টগ্রাম জেলা সংসদ সকালে শহীদ মিনারে পু®পমাল্য অর্পণ করে এবং শহীদদের স্মরণে ১ মিনিট নিরবতা পালন করে। সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী দিবস স্মরণে জেলা কার্যালয়ে সভায় ছাত্র ইউনিয়ন চট্টগ্রাম জেলা সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যানি সেন’র সভাপতিত্বে এক সংক্ষিপ্ত আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ছাত্র ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় সদস্য অভিজিৎ বড়ুয়া। সভায় বক্তব্য রাখেন- জেলা সংসদের স্কুল ছাত্র সম্পাদক টিকলু দে, সদস্য ওসমান গনি প্রমুখ। শিক্ষা ও গবেষণা সম্পাদক শারিয়ার রাফি আলোচনাসভা সঞ্চালনা করেন। সভায় বক্তারা বলেন, ১৯৭২ এর শেষদিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ভিয়েতনামে হত্যাযজ্ঞ চালাচ্ছিল ও রাসায়নিক অস্ত্র দিয়ে জমি ক্ষেত জ্বালিয়ে দিচ্ছিল যাতে খাদ্যাভাবে মানুষ মারা যায়। সারাবিশ্ব এই ঘটনায় হতবাক হয়ে যায় ও যুক্তরাষ্ট্রকে ধিক্কার জানায়। ১৯৭৩ সালের ১ জানুয়ারি ভিয়েতনামের স্বাধীনতা স্বীকৃতির দাবিতে ছাত্র ইউনিয়ন ও ডাকসুর নেতৃত্বে মার্কিন তথ্যকেন্দ্র ঘেরাও কর্মসূচি মিছিলে পুলিশী অতর্কিত হামলায় স্বাধীন বাংলাদেশে প্রথম ছাত্র শহীদ হন ছাত্রনেতা মির্জা কাদের ও মতিউর ইসলাম এবং আহত হন শতাধিক নেতাকর্মী। এ ঘটনায় সারাদেশ ফুঁসে উঠে এবং হত্যার বিচার, বাংলাদেশ কর্তৃক ভিয়েতনামের স্বাধীনতা স্বীকৃতি দেওয়াসহ ৭ দফা দাবিতে সারাদেশে তুমুল ছাত্র আন্দোলন গড়ে উঠে। ছাত্রদের তীব্র আন্দোলনের মুখে তৎকালিন আওয়ামী লীগ সরকার ৭ দফা দাবি মেনে নেয়। ভিয়েতনাম সরকার শহীদ এই দুই বীরকে রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ সম্মাননা জানিয়ে জাতীয় বীরের মর্যাদা দেয়। ১ জানুয়ারির শহীদদের এই আত্মত্যাগের স্মরণে এইদিনকে সাম্রাজ্যবাদবিরোধী সংহতি দিবস পালন করা হয়। আজও ছাত্র ইউনিয়ন বীর শহীদের রক্তের চেতনাকে সমুজ্জ্বল রেখেছে। এখনো এদেশে সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী সংগ্রামের প্রধান অনুপ্রেরণা মতিউল-কাদের। বিজ্ঞপ্তি

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..