মেহনতি মানুষের নেতা ছিলেন মণি সিংহ

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
একতা প্রতিবেদক : ‘মণি সিংহ তার সমগ্র জীবন এদেশের শ্রমিক-কৃষক-মেহনতি মানুসের মুক্তির সংগ্রাম লড়াই করে গেছেন। তার স্বপ্নের কৃষক-শ্রমিক-ক্ষেতমজুরের সমাজতান্ত্রিক বাংলাদেশ গড়ে তোলার লড়াই এখনো চলছে। সেই লড়াই বিপ্লবের তৃষ্ণার্ত তরুণ প্রজন্মের ভেতর ছড়িয়ে দিতে হবে। তাকে চর্চার মাধ্যমে তার জীবন তার জীবনবোধকে ধারণ করা হবে।’ সিপিবির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মণি সিংহের ২৭তম প্রয়াণ দিবস উপলক্ষে রাজধানীর পল্টনে গত ৬ জানুয়ারি শনিবার অনুষ্ঠিত এক আলোচনা সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন শনিবার বিকেলে রাজধানীর পল্টনে মৈত্রী মিলনায়তনে ‘মণি সিংহের জীবন-সংগ্রাম’ শীষক এক আলোচনা সভা আয়োজন করে। সংগঠনের সভাপতি যুবনেতা হাসান হাফিজুর রহমান সোহেলের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক যুবনেতা হাফিজ আদনান রিয়াদের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় আলোচক ছিলেন ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সভাপতি কমরেড শহীদুল্লাহ চৌধুরী, বাংলাদেশ কৃষক সমিতির সভাপতি কমরেড মোর্শেদ আলী, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)-র সাধারণ সম্পাদক কমরেড শাহ আলম, সিপিবির প্রেসিডিয়াম সদস্য লক্ষ্মী চক্রবর্তী। এছাড়া আলোচনা করেন কৃষকনেতা জাহিদ হোসেন খান, সাবেক যুবনেতা রতন কুমার দাস, বাংলাদেশ যুব ইউনিয়নের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ আবদুল মান্নান, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য খান আসাদুজ্জামান মাসুম। বক্তারা বলেন, মণি সিংহ ছিলেন এদেশের তরুণ বিপ্লবীদের কাছে অনুপ্রেরণা ও উজ্জীবনের অফুরান উৎস। ছিলেন মার্ক্সবাদ-লেনিনবাদের সৃজনশীল বৈজ্ঞানিক মতার্দশের দৃঢ় আস্থাবান একজন সাচ্চা কমিউনিস্ট নেতা। পদে পদে বাধা পেরিয়ে তিনি হয়ে উঠেছেন বিপ্লবী। তার বিপ্লবী জীবনাদর্শ ও অক্ষয় বিপ্লবী কর্মকাণ্ডের মধ্যেই তার অবিসংবাদিত পরিচয় পাওয়া যায়। এ পরিচয়ে হয়ে উঠেছিলেন বাম আন্দোলনের একজন শ্রেষ্ঠ নেতা। মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক হিসেবে সোভিয়েত ইউনিয়নের সহযোগিতা লাভে তার অবদান স্মরণীয়। বক্তারা আরো বলেন, ঘড়ি কাঁটা ধরে তিনি চলতেন। শুধু শৃঙ্খলা, নিয়মানুবর্তিতার ব্যাপারে নয়, সময়ের সাথে চলার ব্যাপারে তিনি কঠোর ছিলেন। ‘মণি সিংহ টাইম’ নামে যে সময়ানুবর্তিতার ধারা তিনি তৈরি করে গেছেন, এটি এখন আমাদের মাঝে হারিয়ে যাচ্ছে। সময়ানুবর্তিতার শৃঙ্খলার সে ধারায় সর্বক্ষেত্রে আমাদেরকে ফিরতে হবে। আরো বলেন, চিতার আগুনে জ্বলে জ্বলে মণি সিংহের মরদেহ ছাই হয়ে গেলেও যে জীবন ও সংগ্রামী দৃষ্টান্ত তিনি সারাজীবন অক্লান্ত সাধনায় রেখে গেছেন তা অমর। আজীবন বিপ্লবী, একজন আদর্শবান ন্যায়নিষ্ট, সৎ, সংগ্রামী ও আপোষহীন, সময়ানুবর্তী এবং বিপ্লবী শৃঙ্খলা রক্ষায় অবিচল, মানবতাবাদী ও দেশপ্রেমিক এই নেতা বাংলাদেশের জনগণের কাছে আলোকবর্তিকা হয়ে থাকবেন।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..