জমে উঠেছে শীতবস্ত্রের পাইকারি বাজার

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
সিরাজগঞ্জ সংবাদদাতা : রাজধানীসহ দেশের অভিজাত বিপণিবিতান থেকে ফুটপাতের মার্কেট দখল করে নিয়েছে কেরানীগঞ্জের পূর্ব আগানগর ও কালীগঞ্জের তৈরি বাহারী রং ও ডিজাইনের আধুনিক সব শীতবস্ত্র। দামে কম ও কাপড়ের গুণগতমান ভালো থাকায় ক্রেতারা লুফে নিচ্ছেন এ অঞ্চলের তৈরি শীতবস্ত্র। ক্রেতাদের চাহিদা মেটাতে গিয়ে নির্ঘুমরাত কাটাচ্ছেন দর্জিরা। যদিও বছর জুড়েই চলে নানা ধরনের পোশাক তৈরির কাজ। তবে শীত অথবা ঈদ এলেই কারিগরদের হতে হয় গলদঘর্ম। কালীগঞ্জ, আগানগর ও শুভাঢ্যার বিভিন্ন কারখানা ঘুরে দেখা গেছে, এখানকার তৈরি পোশাকের বাজারে এখনই ভিড়তে শুরু করেছে শীতবস্ত্রের পাইকাররা। তাই দিন-রাত চলছে বাহারীসব শীতবস্ত্র তৈরির কাজ। বছরজুড়েই দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের পাইকাররা এখান থেকে তাদের চাহিদা মাফিক তৈরি পোশাক নিয়ে বিক্রি করে থাকে। তবে বিশেষ করে ঈদ-পূজা বা শীত মৌসুমে এখানকার ব্যাবসায়ীদের কদর বেড়ে যায় দেশের পাইকারদের কাছে। চলতি শীত মৌসুমকে সামনে রেখে এখনই জমে উঠেছে পূর্ব আগানগরের তৈরি পোশাকের শীতকালীন পাইকারি বাজার। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের পাইকাররা ইতোমধ্যেই ভিড় করেছেন কেরাণীগঞ্জের তৈরি পোশাকের শীতকালীন বাজারে। এ ব্যাপারে একতা সুপার মার্কেটের মালিক ও আসাদ এন্টার প্রইজের সত্বাধিকারী হাজি মো. আসাদ খান বলেন, মূলত শীত ও ঈদ মৌসুমই আমাদের সবচেয়ে বড় মৌসুম । তাই চলতি শীত মৌসুমকে সামনে রেখে দিন রাত কাজ করে যাচ্ছে এখানকার প্রায় ১০ সহাস্রাধিক তৈরি পোশাক কারখানার শ্রমিকরা। আগামী আরো বেশ কিছুদিন পর্যন্ত চলবে তাদের এ ব্যস্ত সময়। তৈরি পোশাকের বৃহৎ পাইকারি মার্কেট নুরু সুপার মার্কেট। এখান থেকে দেশের বিভিন্ন এলাকায় তৈরি পোশাক সরবরাহ করা হয়। এ মার্কেটে মোহাম্মাদীয়া গার্মেন্টসের মালিক হাজী মো. ঈসরাফিল জানান, বিগত ৩ বছর শীত মৌসুমে শীত কম থাকায় ব্যবসা ভালো হয়নি। আশা করি এ বছর শীতবস্ত্র বিক্রি ভালো হবে। ইতোমধ্যে পাইকারা মার্কেটে আসা শুরু করেছেন। পূর্ব আগানগর খাজা-সুপার মার্কেটের আলিয়া এন্টারপ্রাইজের মালিক মো. নুরুল আমীন লিটন জানান, চলতি শীত মৌসুমকে সামনে রেখে ইতোমধ্যে পাইকাররা আসতে শুরু করেছে। এবছর ব্যবসা ভালো হওয়ার সম্ভাবনার কথাও তিনি জানান। কেরাণীগঞ্জে এখন আর বিদ্যুৎ সমস্যা নেই। যে কারণে তাদের উৎপাদন আগের তুলনায় অনেকটাই বেশি। এবারের শীতে ছেলেদের শীতকালীন কোর্ট-স্যুট , ব্লেজার ও স্যুয়েটারের পাশাপাশি মেয়েদের জন্যও রয়েছে বাহারী ডিজাইনের সব ধরনের শীতকালীন পোশাক। যেকোনো রুচিশীল তৈরি পোশাক এখানে অত্যন্ত সহজ মূল্যে পাওয়া যায়। পাইকারদের তেমন বেশি ঘোরাঘুরি করতে হয় না। তাছাড়া রাজধানীর যেকোন পাইকারি বাজারের তুলনায় আমাদের এখানে কেনাকাটা করে পাইকাররা কোনোরকম যানজট ছাড়াই নিরাপদে তাদের গন্তব্যে পৌঁছতে পারে। যে কারণে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের পাইকারদের কাছে দিন দিন আমাদের কদর বৃদ্ধি পাচ্ছে।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..