‘রোহিঙ্গা’ উচ্চারণ থেকে বিরত পোপ

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
মিয়ানমার এ প্রথম সফর একতা বিদেশ ডেস্ক : মিয়ানমারের বিরুদ্ধে ওঠা অব্যাহত মানবাধিকার অভিযোগের মধ্যেই সেখানে সফরে গেলেন পোপ। ২৬ নভেম্বর রাতে ইতালির রাজধানী রোম থেকে মিয়ানমারের উদ্দেশ্যে রওনা হন তিনি। মিয়ানমারে কোনও পোপের এটিই প্রথম সফর। ২৫ নভেম্বর ইয়াংগুন বিমানবন্দরে পৌঁছানোর পর মিয়ানমারের কয়েকটি ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর মানুষ নিজেদের ঐতিহ্যবাহী পোশাক পরে পোপকে স্বাগত জানায়। এছাড়া শিশুরা পোপকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানায়। ইয়াংগুনে একই দিন সন্ধ্যায় মিয়ানমারের সেনাপ্রধান সিনিয়র জেনারেল মিন আউং হাইংয়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন পোপ। মিয়ানমার সফরকালে দেশটির সংখ্যালঘু মুসলিম সম্প্রদায়ের কথা বলতে গিয়ে পোপ ‘রোহিঙ্গা’ শব্দটি ব্যবহার করেননি। এর আগে মিয়ানমারের কর্মকর্তারা ‘রোহিঙ্গা’ শব্দটি বরাবরই প্রত্যাখ্যান করে আসছেন, সফরে পোপ এ শব্দটি ব্যবহার করলে তা সহিংসতার কারণ হতে পারে এমন উদ্বেগ থেকে পোপকে তারা অনুরোধ করেন শব্দটি ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে। মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর এ বছর নতুন করে সেনাবাহিনীর নিপীড়নের নিন্দা জানিয়ে এর আগে দেওয়া বিবৃতিতে ‘আমাদের রোহিঙ্গা ভাই ও বোনেরা’ বলেছিলেন পোপ।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..