অক্টোবর বিপ্লবের শতবর্ষ উদযাপন

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
নিউইয়র্ক : বিপ্লব শুধু ক্ষমতা দখলের জন্য নয়। বিপ্লবের প্রকৃত উদ্দেশ্য সমাজের আমূল পরিবর্তন। যে কমিউনিস্টরা কোনো বিপ্লবী ভ্রমে ভোগেন না, আবার হতাশও হন না এবং তাদের সাহস ও নমনীয়তা রক্ষা করে চলেন তারাই পারেন ‘শুরুর পরে আবার শুরু করতে’ (to begin from the beginning.) । এভাবে যারা একটি কঠিন কাজ সমাপ্ত করে পরের বারে আবারও তা শুরু করতে দ্বিধাবোধ করেন না তাদেরই কোনো হতাশা কিংবা দ্বিধা আসবে না এবং তারাই হয়তো ইতিহাসে নিশ্চিহ্ন না হয়ে টিকে থাকতে সক্ষম হবে। এখনও যারা মহৎ স্বপ্ন হিসেবে কমিউনিজমের পথে হাঁটছেন তাদেরকে লেনিনের এই কথাগুলো অবশ্যই মনে রাখতে হবে। অক্টোবর বিপ্লব শুরু হয়েছিল, সফল হয়েছিল, ভুল করেছিল, ভুলের মাশুলও দিয়েছিল এবং দিচ্ছে কিন্তু লেনিনের কথা অনুযায়ী শোষণহীন পৃথিবী সৃষ্টির জন্য, শ্রমজীবীদের সমাজের কর্তায় পরিণত করার জন্য আবার প্রয়োজন হলে ‘শুরু থেকেই শুরু’ করতে হবে। দুনিয়া কাঁপানো অক্টোবর বিপ্লবের শতবর্ষ উদযাপন উপলক্ষে নিউইয়র্কের স্টার পার্টি হল মিলনায়তনে গত ৪ নভেম্বর সন্ধ্যায় অক্টোবর বিপ্লব শতবর্ষ উদযাপন কমিটি, যুক্তরাষ্ট্র’র আহ্বায়ক ড. নজরুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব মো. হারুন এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক, সিপিবি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এম.এম. আকাশ উপরোক্ত বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, বিশিষ্ট বুদ্ধিজীবি ও প্রকৌশলী ড. মহসিন সিদ্দিক, বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ড. বিনায়ক সেন, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন এর প্রাক্তন সভাপতি নাসির উদ দুজা, সাবেক ছাত্র ইউনিয়ন নেত্রী কাকলী বিশ্বাস। প্রকৌশলী ড. মহসিন সিদ্দিক অনুষ্ঠানের উদ্বোধন ঘোষণার পর অক্টোবর বিপ্লবের ওপর একটি ডকুমেন্টরি প্রদর্শন করা হয়। এরপর উদীচী, যুক্তরাষ্ট্র শিল্পীদের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, প্রোগ্রেসিভ ফোরাম এর সভাপতি খোরশেদুল ইসলাম, সাবেক ছাত্র ইউনিয়ন নেতা ও প্রোগ্রেসিভ ফোরাম এর সাধারণ সম্পাদক আলীম উদ্দিন। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন নিউজার্সি থেকে আসা সাবেক ছাত্র ইউনিয়ন নেতা গিয়াস উদ্দিন বাবুল, ডালাস থেকে মাসুদ রহমান, মিশিগান থেকে আসা মিল্টন বড়ুয়া। অনুষ্ঠানে কবিতা আবৃত্তি করেন বিশিষ্ট আবৃত্তিকার ফারুখ ফয়সাল, গোপন সাহা, মিজানুর রহমান বিপ্লব ও সেমন্তি ওয়াহেদ। অনুষ্ঠানে বক্তারা আরো বলেন, সোভিয়েত ইউনিয়ন এবং পূর্ব ইউরোপের সরকার সমূহের পতন আর অক্টোবর বিপ্লব এবং সমাজতন্ত্রের মৃত্যু সমার্থক নয়। চীন, ভিয়েতনাম ও কিউবাসহ পৃথিবীর বেশ কয়েকটি দেশে এখনও সমাজতন্ত্রেও মতাদর্শেও সরকার প্রতিষ্ঠিত আছে। এসব দেশ বিভিন্ন সংস্কারের মাধ্যমে সমাজতন্ত্রকে বিকশিত করার প্রয়াসে নিয়োজিত আছে। যুক্তরাষ্ট্রসহ উন্নত পুঁজিবাদী দেশসমূহের গণমানুষ, বিশেষত তরুণ প্রজন্মের মধ্যে পুঁজিবাদের চেয়ে উন্নততর সমাজের আকাক্সক্ষা জাগরুক আছে। উন্নয়নশীল বিশ্বের জনগণের মধ্যেও সেই আকাক্সক্ষা প্রবল। অক্টোবর বিপ্লবের যেসব মূল লক্ষ্য-তথা শান্তি, জমি এবং রুটি সেসব দাবি এখনও প্রাসঙ্গিক। যারা সাম্য ও ন্যায় ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠা করতে চান, তাদের জন্য অক্টোবর বিপ্লব এবং তার পরবর্তী অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে। সেই শিক্ষা গ্রহণ করে আগামীতে সাম্য, ন্যায়, শোষণহীন ও মানবিক সমাজ প্রতিষ্ঠার প্রতিষ্ঠার প্রয়াসে এগিয়ে আসার জন্য বক্তারা সকলের প্রতি আহ্বান জানান। শেরপুর : রুশ বিপ্লবের শতবর্ষ পূর্তি উপলক্ষে অক্টোবর বিপ্লব শতবর্ষ উদযাপন কমিটি শেরপুর জেলার উদ্যোগে স্থানীয় শহীদ মিনার চত্বরে গত ৪ নভেম্বর বিকেল ৩টায় গণসংগীত ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। উদযাপন কমিটির শেরপুর জেলার আহ্বায়ক ডা. সুধাময় দাস এর সভাপতিত্বে রুশ বিপ্লবের ইতিহাস তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন ময়মনসিংহ জেলা সিপিবির সভাপতি অ্যাড. এমদাদুল হক মিল্লাত। কমিটির সদস্য সচিব ও শেরপুর জেলা সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মাসুম ইবনে শফিক এর সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কমিটির সদস্য মনিরা বেগম অনু, জেলা কমিটির সভাপতি আবুল মুনসুর আহমেদ, উপজেলা কমিটির সভাপতি সোলায়মান আহমেদ, নলিতাবাড়ী উপজেলা সাধারণ সম্পাদক জাহিদ হাসান, অ্যাড. প্রদীপ দে কৃষ্ণ, বীর মুক্তিযোদ্ধা তালাপতুফ মঞ্জু, আবু আহমেদ খান বাবুল, নয়ন ও সদর উপজেলা সাধারণ সম্পাদক গাজী সাইফুল। সমাবেশ শুরুর আগে ব্যানার ও লাল পতাকা হাতে শতাধিক নারী-পুরুষের অংশগ্রহণে একটি বর্ণাঢ্য র্যালি শহর প্রদক্ষিণ শেষে শহীদ মিনারে গিয়ে শেষ হয়। নীলফামারী: মহান অক্টোবর বিপ্লব শতবর্ষ উদযাপন উপলক্ষে নীলফামারীতে অক্টোবর বিপ্লব শতবর্ষ উদযাপন পরিষদের উদ্যোগে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দিবসটি উদযাপিত হয়েছে। গত ২৬ অক্টোবর জেলা শিল্পকলা অডিটরিয়াম প্রাঙ্গণ থেকে ব্যানার, লাল পতাকার আনন্দ শোভাযাত্রা শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে শিল্পকলা অডিটরিয়ামে এক আলোচনা সভায় মিলিত হয়। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন অক্টোবর বিপ্লব উদযাপন পরিষদের আহ্বায়ক অধ্যাপক গৌরাঙ্গ চন্দ্র সরকার। সভায় প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিপিবি সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শাহীন রহমান। এছাড়াও অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য জাহেদুল হক মিলু, ইউসিএফবি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট তুষার কান্তি রায়, আবদুর রহিম, মফিজার রহমান দুলাল, নুরুজ্জামান জোয়ারদার, স্মরণী বিশ্বাস, উদীচীর কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কাজী আবুল হাসনাত, উদীচী নীলফামারী জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক নারায়ণ অধিকারী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন, উদযাপন পরিষদের সদস্য সচিব শ্রীদাম দাস। আলোচনা সভা পরিচালনা করেন আতিয়ার রহমান। আলোচনা সভা শুরুর পূর্বে গণসঙ্গীত, জাতীয় সংগীত ও আন্তর্জাতিক সংগীত পরিবেশন করেন সৈয়দপুর উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী। সভার শুরুতে ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনের সৈনিক, প্রখ্যাত শ্রমিকনেতা জসিম উদ্দীন মন্ডল ও সম্প্রতি অন্যান্য প্রগতিশীল, মুক্তচিন্তক নেতাদের প্রয়াণে শোক প্রকাশের অংশ হিসেবে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। মাদারীপুর : ‘ব্যক্তি মালিকানার পৃথিবীকে বদলে দিন, সামাজিক মালিকানার বিশ্ব গড়ে তুলুন’-এই স্লোগানকে সামনে রেখে মাদারীপুরে ‘অক্টোবর সমাজতান্ত্রিক বিপ্লবের শতবর্ষ উদযাপন’ পরিষদের মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মাদারীপুর প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত এই মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন উদযাপন পরিষদের আহ্বায়ক খান মো: শহীদ। বক্তব্য রাখেন ইতিহাস গবেষক ডা. আব্দুল বারি, সরকারি রিজিয়া বেগম মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ বাবুল আশরাফ, কুদ্দুস ফরাজী, মোশারেফ হোসেন, পলাশ রায়, শ্রমিক নেতা সরোয়ার মোল্লা। সাংবাদিকদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন গোলাম মাওলা আকন্দ, আলী আকবর খোকা, জহিরুল ইসলাম খান, সাগর হোসেন তামিমসহ অন্যরা। সভায় বক্তারা বলেন, ১৯১৭ সালের অক্টোবর মাসে ঘটে যাওয়া বিপ্লবের মাধ্যমে চিন্তায়, দৃষ্টিভঙ্গিতে, রাজনীতি ও সমাজ সংস্কৃতিতে পৃথিবী বদলে গিয়েছিল। যশোর: অক্টোবর বিপ্লবের শতবর্ষ উপলক্ষে যশোরে এক লাল পতাকার মিছিল এবং সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। গত ২ নভেম্বর বিকাল ৪.৩০মি: টাউন হল মাঠে লাল পতাকার সমাবেশ শুরু হয়। তার আগে লালপতাকার মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। এই সমাবেশে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি যশোর জেলা কমিটির পক্ষ থেকে কাঁস্তে হাতুড়ি এবং লাল পতাকা সম্বলিত সুদৃশ্য মিছিল শহর প্রদক্ষিণ করে। বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি যশোর জেলা কমিটির সভাপতি আবুল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক ইলাহদাদ খান এবং সহ- সাধারণ সম্পাদক আমিনুর রহমান হিরু এই মিছিলের নেতৃত্ব দেন। কিশোরগঞ্জ : বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির আয়োজনে গত ২৮ অক্টোবর কিশোরগঞ্জ রঙমহল চত্বরে মহান অক্টোবর বিপ্লব শতবার্ষিকী উদ্যাপিত হয়। প্রায় পাঁচ শতাধিক কৃষক শ্রমিক লাল পতাকা র্যালিতে অংশ নেয়। পরে বিকাল ৩টা থেকে অনুষ্ঠিত জনসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য অনিরুদ্ধ দাশ অঞ্জন। বক্তব্য রাখেন জেলা পার্টির সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য ও বাংলাদেশ কৃষক সমিতির জেলা শ্রমিকনেতা আব্দুর রহমান রুমী, পার্টির জেলা কমিটির সদস্য রফিউল আলম চৌধুরী মিলাদ, আবুল হাশেম মাস্টার, টিইউসি সভাপতি ও জেলা কমিটির সদস্য সিরাজুল ইসলাম সাত্তার ও অক্টোবর শতবার্ষিকী উদ্যাপন কমিটির আহ্বায়ক ও কৃষক সমিতির জেলা সভাপতি ডা. এনামুল হক ইদ্রিস। এছাড়া বক্তব্য রাখেন জেলা পার্টির সাবেক নেতা ডা. সুশীল কুমার শীল, উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর সভাপতি অ্যাড. শেখ নূরুন্নবী বাদল, বাসদ এর জেলা সমন্বয়ক অ্যাড. শফিকুল ইসলাম। জেলা পার্টির সভাপতি সৈয়দ নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভা পরিচালনা করেন সিপিবি জেলার সম্পাদক অ্যাড. এনামুল হক। পাবনা (চাটমোহর): পাবনার চাটমোহর উপজেলা শহরের জিরোপয়েন্টের হারডো মিলনায়তনে গত ২৬ অক্টোবর অক্টোবর বিপ্লব শতবর্ষ উদযান কমিটির আহ্বায়ক সিপিবি নেতা সন্তোষ রায় চৌধুরী সভাপতিত্বে বিপ্লবের শতবর্ষ উদযাপন ও প্রয়াত জসিম উদ্দীন মণ্ডলের স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভা পরিচালনা করেন ডা. অঞ্জন ভট্টাচার্য। আলোচনা করেন সিপিবি পাবনা জেলা কমিটির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আ. রাজ্জাক, বড়াল নদী রক্ষা আন্দোলনের সদস্য সচিব এসএম মিজানুর রহমান, আওয়ামী লীগ নেতা আ. মালেক ও শামসুদ্দোহা, জাসদ নেতা অ্যাড. শহীদুল ইসলাম পলাশ, প্রেসক্লাবের সভাপতি উদীচী উপজেলা কমিটির আহ্বায়ক রকিবুর রহমান টুকুন প্রমুখ। সভায় বক্তাগণ অক্টোবর বিপ্লবের চেতনা ও কমরেড জসিম মণ্ডলের সুদীর্ঘ বিপ্লবী জীবনের উপর আলোকপাত করে বক্তব্য দেন।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..