জাতীয় কমিটির নেতাকর্মীদের উপর সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা ও প্রতিবাদ

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
একতা প্রতিবেদক : নারায়ণগঞ্জের চাষাড়া শহীদ মিনারে তেল-গ্যাস-বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সংগঠক ও সাংস্কৃতিক কর্মীদের উপর সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)। গত ১১ জুলাই জাতীয় কমিটির বিক্ষোভ কর্মসূচি শেষে এ হামলার ঘটনা ঘটে। হামলায় কবি আরিফ বুলবুল, আহমেদ বাবুল, শাহীন মাহমুদ এবং অমল আকাশ আহত হন। সিপিবি সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম এবং সাধারণ সম্পাদক মো. শাহ আলম এবং বাসদ’র সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান এক যৌথ বিবৃতিতে জাতীয় সম্পদ রক্ষার আন্দোলনের নেতাকর্মীদের উপর একের পর এক হামলার ঘটনার নিন্দা জানিয়ে বলেন, সরকার ইতোমধ্যে সুন্দরবন বিধ্বংসী রামপাল প্রকল্প নিয়ে নৈতিকভাবে পরাজিত হয়ে এখন গায়ের জোরে এ প্রকল্প বাস্তবায়নের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। যারাই এই প্রাণ প্রকৃতিবিরোধী প্রকল্পের প্রতিবাদ করছে তাদের উপর পেটোয়া বাহিনী দিয়ে হামলা চালাচ্ছে। কিন্তু জনগণের কণ্ঠরোধ করার সরকারি চেষ্টা কখনই সফল হবে না। হামলাকারীদের চিহ্নিত করে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয় বিবৃতিতে। এদিকে নারায়ণগঞ্জে জাতীয় কমিটির নেতাকর্মীদের উপর হামলার প্রতিবাদে ও হামলাকরীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে গত ১২ জুলাই রাজধানীর শাহবাগে প্রতিবাদ সমাবেশ ও মিছিল করে তেল-গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির ঢাকা মহানগর শাখা। সমাবেশে সভাপত্বি করেন জাতীয় কমিটি মহানগর শাখার সমন্বয়ক, বাসদ মহানগরের সদস্য সচিব জুলফিকার আলী। বক্তব্য রাখেন, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সম্বনয়কারী জোনায়েদ সাকী,সিপিবি নেতা রুহিন হোসেন প্রিন্স, জাতীয় কমিটি ঢাকা মহানগর শাখার সদস্য সচিব ও বিপ্লবী ওযার্কাস পর্টির কেন্দ্রীয় নেতা আকবর খান প্রমূখ। সমাবেশে বক্তারা বলেন, হামলা করে সরকারের শেষ রক্ষা হবে না। জনগণ আন্দোলনের মাধ্যামে সুন্দরবন রক্ষা করবেই। এসব হামলা প্রমাণ করে যে, সরকারের নৈতিক পরাজয় হয়েছে। খুলনায় জাতীয় কমিটির কর্মসূচিতে পুলিশি বাধার প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন জাতীয় কমিটির কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক প্রকৌশলী শেখ মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ, সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..