পানামা পেপার্স : যৌথ তদন্ত দলের সামনে হাজিরা নওয়াজের

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
একতা বিদেশ ডেস্ক : পানামা পেপার্সে নাম আসার পর পরিবারের সম্পত্তি নিয়ে পাকিস্তান সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত যৌথ তদন্ত দলের (জেআইটি) সামনে হাজিরা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ। ১৫ জুন ঐতিহ্যবাহী পোশাক সালোয়ার-কামিজ পরে নওয়াজ তদন্ত দলের শুনানিতে হাজিরা দেন। দায়িত্বে থাকা অবস্থায় পাকিস্তানের কোনও প্রধানমন্ত্রীর এটিই প্রথম কোনও তদন্ত দলের সামনে উপস্থিত হওয়ার ঘটনা। এর আগে নওয়াজ শরিফের ছেলেকেও একই তদন্ত দল জিজ্ঞাসাবাদ করে। নওয়াজ পরিবারকে এ জিজ্ঞাসাবাদের ঘটনা পাকিস্তানজুড়ে আলোড়ন তুলেছে। অন্যদিকে, নওয়াজের দলের অভিযোগ, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশিত ওই তদন্ত দিন দিন রাজনৈতিক হাতিয়ারে পরিণত হচ্ছে। গত বছর ফাঁস হওয়া পানামা পেপারসে নওয়াজ শরীফের মেয়ে মরিয়ম ও ছেলে হাসান-হুসেনের নাম আসে। তারা তিনজন ব্রিটিশ ভার্জিন আইল্যান্ডে নিবন্ধিত বিভিন্ন অফশোর কোম্পানির নামে লন্ডনে সম্পত্তি কেনেন বলে ফাঁস হওয়া নথিতে জানা যায়। এরপরই বিরোধীরা নওয়াজ পরিবারের সম্পত্তির হিসাব ও দুর্নীতির তদন্ত করতে সুপ্রিম কোর্টের কাছে দাবি জানায়। বিচারে আদালত নওয়াজকে অভিশংসিত করার মতো প্রমাণ না পেলেও তার পরিবারের সম্পত্তির যাবতীয় খোঁজ নিতে একটি যৌথ তদন্ত দল গঠনের নির্দেশ দেয়। সামরিক-বেসামরিক গোয়েন্দা সদস্যদের নিয়ে গঠিত ছয় সদস্যের এ তদন্ত দলকে নওয়াজ পরিবারের তিন পুরুষের সম্পত্তির হিসাব নিতে বলা হয়; একইসঙ্গে দুই মাসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দেয়ারও নির্দেশ দেয়া হয়। নওয়াজ শরীফ ও তার সন্তানরা শুরু থেকেই তাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন। পরিবারের সব সম্পত্তিই বৈধ উপায়ে কেনা বলেও দাবি তাদের। যৌথ তদন্ত দলের মুখোমুখি হওয়া নিয়ে নওয়াজের মুখপাত্র কোনো মন্তব্য করেননি। ওদিকে, নওয়াজকে জিজ্ঞাসাবাদকারী যৌথ তদন্ত দলের সদস্যরা সরকারের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ করেছে। তাদের দাবি, সরকারি দপ্তরগুলো তদন্ত সংশ্লিষ্ট পুরনো নথি বদলে ফেলছে। অর্থমন্ত্রী ইসহাক দার বুধবার এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, তদন্ত দলের এ ধরনের দাবির অর্থ হচ্ছে- পুরো ব্যাপারটির মধ্যেই ‘সন্দেহজনক’ কিছু আছে। এর আগে তদন্ত দলের দুই সদস্যকে নিয়ে আপত্তির কথা জানিয়েছিল নওয়াজের দল। তদন্ত দলের কাছে সাক্ষ্য দিচ্ছে নিরাপত্তা ক্যামেরায় তোলা শরীফের ছেলে হুসেনের এমন একটি ছবি ফাঁস হওয়ার ঘটনারও তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে তারা। পাকিস্তানের তিনবারের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের বাবা ছিলেন দেশটির খ্যাতিমান শিল্পপতি। ১৯৯০ ও ১৯৯৯ সালে দুই বার ক্ষমতাচ্যুত হন পাকিস্তান মুসলিম লীগ- নওয়াজের (পিএমএল-এন) দলপ্রধান নওয়াজ শরীফ। দ্বিতীয়বার সেনাবাহিনীর হাতে ক্ষমতাচ্যুত হয়ে দেশান্তরিত হন তিনি; বেশিরভাগ সময়ই থাকেন সৌদি আরবে। ২০১৩ সালের নির্বাচনে ফের ক্ষমতায় আসেন তিনি। বিভিন্ন জরিপে আগামী বছরের নির্বাচনেও নওয়াজের দল পিএমল-এন’র জয়ী হওয়ার ইঙ্গিত আছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..