গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে পাকিস্তানে ভারতীয়র মৃত্যুদণ্ড

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
একতা বিদেশ ডেস্ক : গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে কুলভূষণ যাদব নামের সাবেক এক ভারতীয় নৌ কর্মকর্তাকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে পাকিস্তানের সামরিক আদালত। ১০ এপ্রিল এ রায়ের পর দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা আরও বৃদ্ধির আশঙ্কা করা হচ্ছে। কুলভূষণ যাদবকে ২০১৬ সালের ৩ মার্চ পাকিস্তানের বেলুচিস্তান প্রদেশ থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। বেলুচিস্তানে দীর্ঘদিন ধরে বিচ্ছিন্নতাবাদী তৎপরতা চলছে। ভারত এতে মদদ দিচ্ছে বলে অভিযোগ করে আসছে পাকিস্তান। কুলভূষণ যাদবকে গুপ্তচরবৃত্তি এবং পাকিস্তানে অন্তর্ঘাতমূলক তৎপরতা চালানোর অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। পাকিস্তান সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “বেলুচিস্তানে গুপ্তচরবৃত্তি ও নাশকতার পরিকল্পনা, সমন্বয় ও বাস্তবায়নের জন্য ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থা তাকে নিয়োগ দিয়েছে বলে তিনি (কুলভূষণ সুধীর যাদব) স্বীকার করেছেন। বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করা এবং পাকিস্তানের বিরুদ্ধে যুদ্ধ শুরু করাই এর লক্ষ্য ছিল।” যাদব গ্রেপ্তার হওয়ার পরও ইসলামাবাদ একটি ভিডিও প্রকাশ করেছিল যাতে যাদবকে গুপ্তচরবৃত্তিতে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করতে দেখা যায়। তবে দিল্লি ভিডিওতে দেখা যাওয়া ব্যক্তিকে ভারতীয় বলে স্বীকার করলেও গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, ফিল্ড জেনারেল কোর্ট মার্শালে যাদবের মৃত্যুদণ্ডাদেশ গৃহীত হয়েছে এবং পাকিস্তানের সেনা প্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া ওই রায় অনুমোদন করেছেন। তবে কবে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হবে সে সম্পর্কে সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে কিছু জানানো হয়নি। ভারত এ দণ্ডাদেশের নিন্দা জানিয়েছে এবং যাদবের বিরুদ্ধে বিচার প্রক্রিয়াকে উদ্ভট আখ্যা দিয়েছে। ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, “শ্রী যাদব গত বছর ইরান থেকে অপহৃত হয়েছিলেন এবং এরপর পাকিস্তানে তার উপস্থিতির বিষয়টি কখনওই বিশ্বাসযোগ্যভাবে ব্যাখ্যা করা হয়নি।” বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ভারত ১৩ বার অনুরোধ জানানোর পরও তার সাথে কনসুলারদের সাক্ষাৎ করতে দেওয়া হয়নি এবং তাকে বিচার করার বিষয়টিও ভারতকে জানানো হয়নি। দণ্ডাদেশ কার্যকর করা হলে ভারত একে ‘পরিকল্পিত খুন’ বলেই গণ্য করবে।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..