সবাইকে বিনামূল্যে করোনা ভ্যাকসিন দেয়ার দাবি

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
একতা প্রতিবেদন : করোনাভাইরাস মহামারি প্রতিরোধে অবিলম্বে দেশের সব নাগরিককে বিনামূল্যে ভ্যাক্সিন দেয়ার দাবি জানিয়েছে চিকিৎসকদের সংগঠন ডক্টরস প্লাটফর্ম ফর পিপলস হেলথ। কোভিডের ভ্যাকসিন নিয়ে যেন ব্যবসা না হয় সে বিষয়ে সরকারকে সর্তক থাকারও পরামর্শ দিয়েছেন সংগঠনটি। গত ১১ জানুয়ারি ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সংগঠনের আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব দাবি জানানো হয়। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সংগঠনের সদস্য সচিব অধ্যাপক ডা. শাকিল আক্তার। বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক ডা. মো. হারুন অর রশিদ। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, ‘কোভিড পরিস্থিতির শুরুতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের উদাসীনতায় দেশে মহামারি শুরু হয়। বর্তমানে যে হারে প্রতিদিন করোনা টেস্ট করা প্রয়োজন তা হচ্ছে না। তার মধ্যে সরকার লকডাউনে না গিয়ে গণছুটি ঘোষণা করায় পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়েছে। বিশেষ করে পোশাক কারখানা বন্ধ না করায় করোনার সংক্রমণ কমিউনিটি পর্যায়ে ছড়িয়ে পড়েছে। করোনার ভ্যাকসিন সংগ্রহ ও বিতরণে সরকার সর্বোচ্চ গুরুত্ব না দিলে এই বিপর্যয় আরও বাড়বে।’ লিখিত বক্তব্যে আরও বলা হয়, সরকার জিটুজি চুক্তি না করে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ত্রিপক্ষীয় চুক্তি করেছে। এতে করে ভ্যাকসিনের মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। ইতোমধ্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেছিলেন, চলতি বছরের জানুয়ারি অথবা ফেব্রুয়ারির প্রথম দিকে ভ্যাকসিন দেয়ার কাজ শুরু হবে। কিন্তু ভারত সরকারের নিষেধাজ্ঞায় সিরামের ভ্যাকসিন পাওয়া অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। দেশের জনগণ মধ্যস্বত্বভোগীদের হস্তক্ষেপ ছাড়া দ্রুত সময়ে ভ্যাকসিন পেতে চায়। ভ্যাকসিনের ক্ষেত্রে যেন ব্যক্তি বিশেষকে গুরুত্ব না দিয়ে সকলকে সমানভাবে গুরুত্ব দেয়া হয় সেই দাবি জানিয়েছে চিকিৎসকদের এই সংগঠন। তাদের অভিযোগ, ‘ইতোমধ্যে সরকার দেশি প্রতিষ্ঠান গ্লোব বায়োটেক টিকা উৎপাদনের অনুমতি দিয়েছে। যদিও সরকারের এই কাজ আগেই করা উচিত থাকলেও তা করা হয়নি। বাংলাদেশের স্বাস্থ্যখাত লুটেরা দুর্নীতিবাজ আমলা ব্যবসায়ীদের নিয়ন্ত্রণে চলে যাওয়ায় স্বল্পমূল্যে ও যথাসময়ে টিকা পাওয়া অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। এজন্য জনগণকে সঙ্গে নিয়ে করোনার টিকা পাওয়ার ক্ষেত্রে আরও সোচ্চার হতে হবে।’

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..