রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল চালুর দাবিতে কফিন মিছিলে বাধা, আটক

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
একতা প্রতিবেদক : রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলো চালু ও শ্রমিকদের বকেয়া টাকা এককালীন পরিশোধের দাবিতে খুলনা মহানগরীর খালিশপুর এলাকায় গত ৪ অক্টোবর কফিন মিছিলের কর্মসূচি ছিল। কিন্তু পুলিশ সেটি হতে দেয়নি। পুলিশের বাধায় সেই কফিন মিছিল প- হয়ে গেছে। উপরন্তু দুপুরবেলা ঘটনাস্থল থেকে আন্দোলনের তিন সংগঠককে আটক করে নিয়ে যায় পুলিশ। পরে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা কফিন এদিন খালিশপুর শিল্পাঞ্চলে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়। নতুন রাস্তা মোড় এলাকার বিআইডিসি সড়কের প্রবেশপথ বন্ধ করে দেওয়া হয়। এ ছাড়া প্রতিটি মিল গেটে বিপুল সংখ্যক শিল্প পুলিশ ও সাধারণ পুলিশ মোতায়েন করা হয়। পুলিশ বলছে, ওই মিছিল করার জন্য খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ থেকে কোনো অনুমতি দেওয়া হয়নি। ওই তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। আর আওয়ামী লীগ নেতারা বলছেন, যেহতেু শ্রমিকরা টাকা পাচ্ছে তাই সরকারকে অভিনন্দন জানিয়ে তারা আনন্দ মিছিল করেছেন। আটক তিন সংগঠককে পরে ছেড়ে দেওয়া হয়। পাটকল শ্রমিক আন্দোলনের সংগঠকরা জানিয়েছেন, রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল চালুসহ ২ দফা দাবিতে ৪ অক্টোবর বিকেল ৪টায় নগরীর খালিশপুর প্লাটিনাম জুটমিল গেট থেকে নতুন রাস্তা মোড় পর্যন্ত কফিন মিছিলের কর্মসূচি ছিল। এই কর্মসূচি সফল করার প্রস্তুতি নেওয়ার সময় দুপুর ২টায় প্লাটিনাম জুটমিল গেটে বিপুল সংখ্যক পুলিশ আসে। এ সময় পুলিশ শ্রমিক কৃষক ছাত্র জনতা ঐক্য পরিষদের সমন্বয়কারী রুহুল আমিন, বিপ্লবী ছাত্র-যুব আন্দোলনের সভাপতি আতিফ অনিক ও ছাত্র নেতা সুজয় শুভ নামে তিনজনকে আটক করে খালিশপুর থানায় নিয়ে যায়। দিঘলিয়া থেকে স্টার জুটমিল শ্রমিকদের ভৈরব নদী পার হয়ে খালিশপুরে এসে এই কর্মসূচিতে যোগদান করার কথা ছিল। কিন্তু পুলিশ হার্ডবোর্ড মিল সংলগ্ন ঘাটে ট্রলার পারাপার বন্ধ করে দেয়। এ ছাড়া দুপুর ৩টার দিকে প্লাটিনাম গেটে ক্ষমতাসীন দলের বেশ কিছু নেতাকর্মী জড়ো হন। সামগ্রিক অবস্থায় তারা কফিন মিছিল করতে পারেননি।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..