বানভাসী মানুষের জন্য পর্যাপ্ত খাদ্যসামগ্রী ও চিকিৎসার দাবি ক্ষেতমজুর সমিতির

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
একতা প্রতিবেদক : বাংলাদেশ ক্ষেতমজুর সমিতি কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সভায় নেতৃবৃন্দ বলেছেন, বেশির ভাগ জেলার মানুষ বন্যাক্রান্ত এবং ওইসব এলাকার সাধারণ মানুষ না খেয়ে, নিরাপদ আশ্রয়স্থল না পেয়ে খোলা আকাশের নিচে বসবাস করতে বাধ্য হচ্ছেন। নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে বানভাসী মানুষের জন্য পর্যাপ্ত খাদ্যসামগ্রী ও প্রয়োজনীয় চিকিৎসার ব্যবস্থার করার জন্য সরকারের প্রতি জোর দাবি জানান। গত ৩ অগাস্টের এ নির্বাহী সভায় আরও বলা হয়, করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়ায় কর্মহীন মানুষ পরিবার পরিজন নিয়ে দুর্দশার মধ্যে দিনাতিপাত করছেন। এসব মানুষের জন্য সরকারি পর্যাপ্ত বরাদ্দ নেই। মহামারির শুরু থেকে সাধারণ মানুষের নামে যৎসামান্য যা সরকারি বরাদ্দ ছিল তার বেশিরভাগই লুটপাট হয়ে গেছে। ক্ষেতমজুর নেতারা অবিলম্বে কর্মহীন মানুষের জন্য রেশনিং-এর মাধ্যমে চালসহ খাদ্যসামগ্রী দাবি করেন। তারা গ্রামে গ্রামে বিনামূল্যে করোনা টেস্ট ও চিকিৎসারও দাবি জানান। নির্বাহী কমিটির সভায় বন্যা ও করোনা মহামারির সময়ে সবচেয়ে কষ্টে থাকা ক্ষেতমজুরসহ গ্রামীণ মজুরদের বাঁচার দাবিতে জেলা ও উপজেলায় বিক্ষোভ কর্মসূচি পালনের জন্য সংশ্লিষ্ট কমিটির নেতৃবৃন্দের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে। ‘বাংলাদেশ ক্ষেতমজুর সমিতি’ নামের ফেইসবুক পেইজটি হ্যাক হয়েছে জানিয়ে সভা থেকে নেতৃবৃন্দ বলেন, ওই পেইজ থেকে ধারাবাহিকভাবে বিভ্রান্তিমূলক তথ্য প্রচার হচ্ছে। যা অত্যন্ত নিন্দনীয়। নেতৃবৃন্দ পেইজের তথ্য থেকে কাউকে বিভ্রান্ত না হওয়ার অনুরোধ জানান। ক্ষেতমজুর সমিতির সভাপতি ডা. ফজলুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনলাইন সভায় সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আনোয়ার হোসেন রেজা, সহ-সাধারণ সম্পাদক অর্ণব সরকার, নির্বাহী কমিটির সদস্য শামছুজ্জামান সেলিম, রমেন বর্মন ও মোতালেব হোসেন অংশ নেন।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..