স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের শাস্তি দাবি বাম জোটের

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
একতা প্রতিবেদক : করোনাভাইরাস মহামারীতে জনগণের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে সরকারের সীমাহীন ব্যর্থতা, দুর্নীতি-লুটপাট-অব্যবস্থাপনা-সমন্বয়হীনতা, বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, ত্রাণ বিতরণে অপর্যাপ্ততা, রাষ্ট্রীয় পাটকল বন্ধ, শ্রমিক ছাঁটাই, কর্মহীন হতদরিদ্র মানুষের খাদ্য নিরাপত্তা, জননিরাপত্তা, বর্তমান সরকারের ফ্যাসিবাদী দুঃশাসনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। ২৭ জুলাই দুপুরে পুরানা পল্টনের মৈত্রী মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বাম গণতান্ত্রিক জোটের কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক ও বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বজলুর রশীদ ফিরোজ। বক্তব্য রাখেন সিপিবি’র সহকারী সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ জহির চন্দন, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, কমিউনিস্ট লীগের সম্পাদক অধ্যাপক আব্দুস সাত্তার, বাসদ (মার্কসবাদী) নেতা মানস নন্দী, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আহ্বায়ক হামিদুল হক, গণসংহতি আন্দোলনের সম্পাদক বাচ্চু ভূইয়া। সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রাজেকুজ্জামান রতন, সিপিবি’র আবদুল্লাহ কাফী রতন, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির আকবর খান, ইউসিএলবি’র নজরুল ইসলাম। সংবাদ সম্মেলন থেকে ৯ দফা দাবি তুলে ধরা হয় এবং ঈদের পরে সরকারের ফ্যাসিবাদী দুঃশাসনের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ গণআন্দোলন গড়ে তোলার লক্ষ্যে জাতীয় কনভেনশনের মাধ্যমে বৃহত্তর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলে জানানো হয়। বাম গণতান্ত্রিক জোটের দাবিগুলোর মধ্যে আছে- করোনা মোকাবেলায় ব্যর্থ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও দুর্নীতি-অব্যবস্থাপনার জন্য দায়ী মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের অবিলম্বে অপসারণ ও শাস্তি দিতে হবে। স্বাস্থ্যখাতের ঠিকাদার- মিঠুসহ ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট ও তার হোতাদের গ্রেপ্তার বিচার করতে হবে। করোনাভাইরাস শনাক্তকরণ টেস্টের ফি বাতিল করতে হবে। প্রতি জেলায় করোনা টেস্টের ল্যাব প্রতিষ্ঠা ও সকল নাগরিকের করোনা পরীক্ষা ও চিকিৎসা বিনামূল্যে করতে হবে। সর্বজনীন স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে হবে, বেসরকারি হাসপাতাল অধিগ্রহণ করে করোনা চিকিৎসা সেবা দিতে হবে। বন্যার্তদের পর্যাপ্ত ত্রাণ, চিকিৎসা ও পুনর্বাসন করতে হবে। রাষ্ট্রীয় পাটকল বন্ধের গণবিরোধী সিদ্ধান্ত বাতিল করতে হবে। বন্ধ বা পিপিপি নয়, আধুনিকায়ন করে রাষ্ট্রীয় পাটকল চালু রাখতে হবে। গার্মেন্টসসহ সকল প্রতিষ্ঠানে শ্রমিক ছাঁটাই বন্ধ করতে হবে। ঈদের আগেই সকল শ্রমিকদের বকেয়াসহ জুলাই মাসের বেতন ও ঈদ বোনাস পরিশোধ করতে হবে। সাড়ে ৬ কোটি দরিদ্র, কর্মহীন মানুষকে নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান করতে হবে। নিবর্তনমূলক কালো আইন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল করতে হবে। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তারকৃত সাংবাদিক কাজল, লেখক মোস্তাক আহমেদ, কার্টুনিস্ট কিশোর, এ্যাক্টিভিস্ট দিদার, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক কাজী জাহিদুর রহমান, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সিরাজুম মুনীরা ও খুলনার পাটকল শ্রমিক নেতা নূরুল ইসলাম, অলিয়ার রহমানসহ সকল বন্দিদের ঈদের আগেই নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..