১৩ মাসের বকেয়ার দাবিতে প্যারাডাইস কেবলসের শ্রমিকদের লাগাতার আন্দোলন

২৮ জুন প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় অভিমুখে বিক্ষোভ

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
একতা প্রতিবেদক : তেরো মাস ধরে বকেয়া পড়ে থাকা মজুরির দাবিতে শ্রম ভবনের সামনে টানা অবস্থান কর্মসূচি পালন করছে নারায়ণগঞ্জের প্যারাডাইস কেবলস কারখানার শ্রমিকরা। বকেয়ার দাবিতে গত ২৫ মে বেলা ১১টায় শ্রম ভবন থেকে জাতীয় প্রেসক্লাব পর্যন্ত বিক্ষোভ মিছিল এবং প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশও করেছে তারা। সমাবেশে গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক শ্রমিক নেতা জলি তালুকদার বলেন, দেশে একটা মহামারী অবস্থা চলে। প্রতিটা মানুষ সংক্রমণের উচ্চ ঝুঁকিতে আছে। অথচ শ্রমিকরা পাঁচ দিন ধরে টানা আধপেটা খেয়ে শ্রম ভবনের বারান্দায় পড়ে আছে। এ নিয়ে সরকারের কারো কোন ধরনের উদ্বেগও দেখা যাচ্ছে না । তিনি বলেন, শ্রম দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা শিল্প পুলিশকে চিঠি দিয়ে নিজেদের দায়িত্ব শেষ করেছেন। অন্যদিকে নির্দেশিত হওয়ার তিন দিন অতিক্রান্ত হলেও শিল্প পুলিশ মালিককে ধরতে উদ্যোগ নিচ্ছে না। সংকটের সুরাহা করার বিষয়ে কারো উদ্যোগই দৃশ্যমান নয়। এদিনের সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন প্যারাডাইস কেবলস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি দেলোয়ার হোসেন। বক্তব্য রাখেন গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সভাপতি শ্রমিকনেতা মন্টু ঘোষ, জাহাঙ্গীর আলম গোলক, কারখানার শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ রুবেল, নিলুফার ইয়াসমিন, আব্দুল কাইউম, ফয়সাল আহমেদ, মোহাম্মদ ডালিম। সমাবেশে মন্টু ঘোষ বলেন, সংকটের সুরাহায় সরকারি কোন সংস্থা এখন পর্যন্ত কোন ধরনের অগ্রগতির কথা বলছে না। শ্রমিক পরিবারগুলো ধার দেনায় জর্জরিত হয়ে আর কোনোভাবেই জীবন ধারণে সক্ষম হচ্ছে না। এই মূহুর্তে শ্রমিকদের বকেয়া বেতন পরিশোধে মালিকপক্ষকে কোনোভাবে বাধ্য করা না গেলে তাদের জীবন বাঁচানো অসম্ভব হয়ে যাবে। শ্রমিকরা অসহায় এবং সর্বত্র প্রত্যাখ্যাত হয়ে শ্রম ভবনের বারান্দায় বসেছে। ১৩ মাসের বকেয়া বেতন পরিশোধ এবং কারখানার উৎপাদন চালুর পদক্ষেপ না নেয়া পর্যন্ত তারা ঘরে ফিরে যাবে না। ২৫ জুনের অবস্থান কর্মসূচিতে সংহতি জানান বাংলাদেশ যুব ইউনিয়নের সভাপতি হাফিজ আদনান রিয়াদ, সাধারণ সম্পাদক খান আসাদুজ্জামান মাসুম, হকার্স ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সেকেন্দার হায়াৎ, অভিনয়শিল্পী সুমনা সোমা, শনির আখড়া আন্দোলনের নেতা মোসলে উদ্দিন মাসুদ, এম আই টিটো, যুবনেতা গোলাম রাব্বী খান। আগেরদিনও একইভাবে শ্রম ভবন থেকে মিছিল নিয়ে গিয়ে প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশ করেছিলেন বকেয়ার জন্য আন্দোলন করে যাওয়া এ শ্রমিকরা। এদিন তাদের অবস্থান কর্মসূচিতে সংহতি জানান, গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সভাপতি শ্রমিকনেতা অ্যাড. মন্টু ঘোষ, সাধারণ সম্পাদক জলি তালুকদার, এম এ শাহীন, মঞ্জুর মঈন, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি মেহেদি হাসান নোবেল, পরিবহন শ্রমিকনেতা হযরত আলী, সিপিবি শান্তিনগর শাখার সহ-সম্পাদক ফারহান হাবীব, ছাত্রনেতা মেঘমল্লার বসু, ড্রাগন সোয়েটার কারখানার শ্রমিক আব্দুল কুদ্দুস। শ্রম ভবনের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করা এ শ্রমিকদের জন্য ঢাকার বিভিন্ন স্থান থেকে সাধারণ মানুষ চাল, ডাল, তেল, আলুসহ খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দিচ্ছে। আন্দোলনরত শ্রমিকদের সুরক্ষার জন্য তাদেরকে হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়েছে ছাত্র ইউনিয়ন। আন্দোলনরত শ্রমিকরা আগামী ২৮ জুন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অভিমুখে বিক্ষোভ কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছেন।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..