নতুন আন্তর্জাতিক সংস্থা ‘প্রগ্রেসিভ ইন্টারন্যাশনাল’

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
একতা বিদেশ ডেস্ক : বার্নি স্যান্ডার্স, নোম চমস্কিসহ কয়েকজন বাম ঘরানার রাজনীতিবিদ এবং বুদ্ধিজীবিরা নতুন আন্তর্জাতিক সংস্থা ‘প্রগ্রেসিভ ইন্টারন্যাশনাল’ এর ঘোষণা দিয়েছেন। চমস্কি এবং স্যান্ডার্স ছাড়াও লেখক নাওমি ক্লাইনের পাশাপাশি আইসল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী ক্যাট্রিন ইয়াকভসডটার ও সাবেক গ্রিক অর্থমন্ত্রী ইয়ানিস ভেরাফাকিস, লাতিন আমেরিকার বাম-ঘরানার রাজনীতিক হিসেবে পরিচিত একুয়েডরের সাবেক প্রেসিডেন্ট রাফায়েল কোরায়া, ব্রাজিলের সাবেক প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ফার্নান্দো হাড্ডাড, বলিভিয়ার সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট আলভারো গার্সিয়া লিনেরা, ব্রাজিলের সাবেক পররাষ্ট্র মন্ত্রী সেলসো আমোরিম মতো খ্যাতনামা ব্যক্তিরা রয়েছেন এই সংস্থায়। ‘প্রগ্রেসিভ ইন্টারন্যাশনাল’ এর বিষয়ে অধ্যাপক চমস্কি জানান, কোভিড-১৯ সংকটের ফলে ক্রমবর্ধমান ভয়াবহ অর্থনৈতিক বৈষম্য এবং বিশ্বব্যাপী কট্টর-ডানপন্থিদের উত্থানের কারণই বিশ্বব্যাপী বাম ঘরানার এরকম একটি প্ল্যাটফর্মের প্রয়োজনীয়তা সৃষ্টি করেছে। স্বৈরতান্ত্রিক উদারনৈতিকতা এক পথে দাঁড়িয়ে আছে। অন্য এক পথে চেষ্টা চলছে কাঠামো ভেঙে ফেলার; যেসব প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামোগুলো তৈরি করা করা হয়েছিল সেগুলো ভেঙে ফেলার। এটা বিশ্বের বেশিরভাগ অংশের বেশিরভাগ জনগোষ্ঠীকেই ভয়াবহ পরিণতির দিকে ঠেলে দেবে। আর এটাই এই মহামারীর উৎস। মূলত ডেমোক্রেসি ইন ইউরোপ মুভমেন্ট ২০২৫ ও স্যান্ডার্স ইনস্টিটিউটের সহযোগিতায় গঠিত এ সংস্থাটি। ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে ডেমোক্রেসি ইন ইউরোপ মুভমেন্ট ২০২৫ (ডিআইইএম ২৫) ও স্যান্ডার্স ইনস্টিটিউটের যৌথভাবে ‘দুনিয়ার প্রগতিশীলরা এক হও’ আহ্বানের উপর ভিত্তি করে বিশ্বব্যাপী এ ধরনের একটি আন্তর্জাতিক সংস্থা গড়ে তোলার পরিকল্পনা শুরু হয়। ইতোমধ্যে আগামী সেপ্টেম্বরে আইসল্যান্ডে তাদের প্রথম সম্মেলনের ডাক দিয়েছে। ৪০ জনেরও বেশি উপদেষ্টাকে নিয়ে গঠিত হয়েছে এই সংস্থার অন্তর্বর্তী কাউন্সিল। আইসল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী ও লেফট-গ্রিন মুভমেন্টের আয়োজনে ওই সম্মেলনে একুশ শতকের চ্যালেঞ্জ ও সংস্থার সদস্যদের প্রস্তাবিত কৌশলগত নির্দেশনাগুলো পর্যালোচনা করা হবে। এদিকে বিশ্বের দরিদ্রতম দেশগুলোর ঋণ বাতিলের জন্য আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) ও বিশ্বব্যাংকের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের ডেমোক্রেট দলীয় সিনেটর ও সাবেক প্রেসিডেন্ট প্রার্থী বার্নি স্যান্ডার্স ও যুক্তরাজ্যের বিরোধী দল লেবার পার্টির সদ্য সাবেক নেতা জেরেমি করবিন। একই সাথে দাবি তুলেছেন দরিদ্র দেশগুলোর জন্য সহায়তা বৃদ্ধির। ঋণ বাতিলের বিষয়ে স্যান্ডার্স বলেন, বিশ্বজুড়ে কোটি কোটি মানুষের জীবনকে বিপন্ন করা এবং দারিদ্র্য, ক্ষুধা ও রোগ অকল্পনীয় মাত্রায় বৃদ্ধি প্রতিরোধ করতে অন্তত এতটূকু করতেই হবে আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে। আইনপ্রণেতারা বলছেন, এ বিষয়ে ১৫ দিনের মধ্যে আইএমএফ ও বিশ্বব্যাংককে সাড়া দিতে হবে।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..