ইসরায়েলের দখলদারিত্বের ৭২ বছর

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
একতা বিদেশ ডেস্ক : গত ১৫ মে ছিল ফিলিস্তিনে ইসরায়েলের দখলদারিত্বের ৭২ বছর। ফিলিস্তিনিরা যাকে বলে নাকাবা। ১৯৪৮ সালের ১৫ মে ফিলিস্তিন ভূখণ্ড ফিলিস্তিনিদের বিতাড়িত করে ইসরাইল নামক অবৈধ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। নিজের ভূখণ্ড থেকে অবৈধভাবে তাড়ানো হয়েছিল সাড়ে সাত লাখের বেশি ফিলিস্তিনিকে। সে সময় ফিলিস্তিনের মোট জনসংখ্যা ছিল ১৯ লাখ। অবৈধ রাষ্ট্র ইহুদিবাদী ইসরাইল প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর এ দিনটিকে প্রতি বছর নাকাবা বা বিপর্যয় দিবস পালন করেন ফিলিস্তিনিরা। নাকাবা বা বিপর্যয় দিবসে ফিলিস্তিনের পতাকাবহনকারী বিক্ষোভকারীরা অধিকৃত ফিলিস্তিনের উত্তরাঞ্চলে কোনো কোনো অংশ সমবেত হয়েছিলেন। আয়োজন করেছেন বিশাল বিক্ষোভের। ৭২তম নাকাবা দিবসে ফিলিস্তিনিদের উদ্দেশ্যে দেয়া এক বক্তব্যে ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস বলেন, আল-আকসা মসজিদে যতদিন না ফিলিস্তিনের পতাকা না উড়ছে ততদিন তাদের সংগ্রাম অব্যাহত থাকবে। তিনি বলেন, ইসরায়েল যদি পশ্চিম তীরের আর একটু জায়গাও দখলের চেষ্টা করে তাহলে তাদের সঙ্গে সব চুক্তি বাতিল করা হবে। ইসরায়েলকে আবারো দখলদার রাষ্ট্র হিসেবে আখ্যায়িত করে তিনি বলেন, ফিলিস্তিনের বিরুদ্ধে নানামুখী ষড়যন্ত্র ও বিদ্বেষী নীতি অব্যাহত রয়েছে। তবে ফিলিস্তিনিরা দখলদার ইসরায়েলের বিরুদ্ধে তাদের অধিকার আদায়ে ন্যায্য উপায় অবলম্বন করবে। যতদিন না ফিলিস্তিনিদের পবিত্র ভূমি থেকে ইসরায়েলকে না সরানো যাবে ততদিন তাদের প্রতিবাদ অব্যাহত থাকবে। আব্বাস আরো বলেন, ফিলিস্তিনি জনগণের ন্যায্য অধিকার বানচাল করার জন্য ইসরায়েল এখনো নানা পরিকল্পনা ও ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। কিন্তু এর মধ্য দিয়ে ফিলিস্তিনিদের দমিয়ে রাখা যাবে না। ফিলিস্তিনি জনগণের প্রতিবাদ চলতেই থাকবে, যতদিন না আল-আকসা মসজিদে ফিলিস্তিনি পতাকা না উড়ানো হয়। ইসরায়েল ও যুক্তরাষ্ট্র যদি পশ্চিম তীরের ভূমি দখলের ষড়যন্ত্রমূলক চুক্তি বাস্তবায়ন করে তাহলে তিনি তেলআবিব ও ওয়াশিংটনের সঙ্গে সমস্ত চুক্তি বাতিল করবেন বলেও ঘোষণা করেন।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..