মানহানির মামলা তুলে নিল মিয়ানমারের সেনাবাহিনী

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
একতা বিদেশ ডেস্ক : মিয়ানমারের সেনাবাহিনী বার্তা সংস্থা রয়টার্সের বিরুদ্ধে রাখাইনে দুই মুসলিম নারীর নিহতের খবরকে কেন্দ্র করে করা একটি মানহানির মামলা তুলে নিয়েছে। রয়টার্স এবং ইরাবদীর বিরুদ্ধে মিয়ানমারের টেলিকমিউনিকেশন আইনের ৬৬ডি ধারায় মামলা হয়েছিল। মিয়ানমারের প্রেস কাউন্সিল জানিয়েছে, সেনাবাহিনী রয়টার্সের পাশাপাশি গত বছর স্থানীয় সংবাদমাধ্যম ইরাবদীর বিরুদ্ধে যে মামলা করেছিল তাও প্রত্যাহার করে নিয়েছে। ১৮ মার্চ দেশটির সেনাবাহিনীর মুখপাত্র জ মিন তুন জানান, মিয়ানমারের প্রেস কাউন্সিলের অনুরোধ এবং গণমাধ্যমের সঙ্গে সেনাবাহিনীর ভালো সম্পর্ক বজায় রাখার স্বার্থেই মামলাটি প্রত্যাহার করা হয়েছে। গত সপ্তাহে রয়টার্স ও স্থানীয় এক আইনপ্রণেতার বিরুদ্ধে সেনাবাহিনীর এ মামলার খবর দিয়েছিল মিয়ানমার পুলিশ। সেনাবাহিনীর অভিযোগ, ২৫ জানুয়ারি রয়টার্সের খবরে স্থানীয় এক আইনপ্রণেতার বরাতে তাদের ছোড়া গোলায় রাখাইনে দুই মুসলিম নারী নিহত হয়েছিল বলে জানিয়েছিল। ওই সংবাদকে মিথ্যা ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত অ্যাখ্যা দিয়েই মানহানির মামলাটি করা হয়। আরাকান আর্মির হামলায় ওই দুই নারী নিহত হয়েছে বলে দাবি মিয়ানমার পুলিশের। হামলার জন্য আরাকান আর্মিও সেসময় মিয়ানমার সেনাবাহিনীকে দায় দিয়েছিল। “মিয়ানমার প্রেস কাউন্সিলের মধ্যস্থতা ও অনুরোধে আমরা ওই মামলাটি তুলে নিয়েছি। বহুদলীয় গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় গণমাধ্যমের ভূমিকাকে স্বীকৃতি ও মূল্য দিই আমরা, ” টেলিফোনে রয়টার্সকে বলেছেন জ মিন তুন। তবে রয়টার্সের বিরুদ্ধে সেনাবাহিনীর মামলাটি তুলে নেয়া হয়েছে কিনা রাখাইনের পুলিশ তাৎক্ষণিকভাবে তা জানাতে পারেনি।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..