অ্যাসাঞ্জের স্বাস্থ্য সুরক্ষা চেয়ে খোলা চিঠি

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email

একতা বিদেশ ডেস্ক : বিশ্বের শতাধিক চিকিৎসক ও মনোবিদ সাড়া জাগানো বিকল্প সংবাদমাধ্যম উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জের ওপর মানসিক নির্যাতন বন্ধ ও তার স্বাস্থ্যগত দুরাবস্থাকে আমলে নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। ১৭ ফেব্রুয়ারি চিকিৎসাবিষয়ক সাময়িকী ল্যানসেট-এ প্রকাশিত এক খোলাচিঠিতে তারা এই আহ্বান জানান। তারা অভিযোগ করেছেন, কারাবন্দি অ্যাসাঞ্জকে কারাগারে ‘নির্যাতন’ করা হচ্ছে। ‘...অ্যাসাঞ্জের ওপর যে নির্যাতন চালানো হচ্ছে, আমরা তার নিন্দা জানাই। যথাযথ স্বাস্থ্যসুবিধা পাওয়ার মৌলিক অধিকারের বিষয়টি অগ্রাহ্য করারও নিন্দা জানাই। অ্যাসাঞ্জকে গ্রেফতারের পর ২০১৯ সালের ৯ মে কারাগারে তার সঙ্গে দেখা করার সুযোগ পান নির্যাতনসহ বিভিন্ন ধারার নিষ্ঠুরতা প্রতিরোধ বিষয়ক বিশেষ জাতিসংঘ দূত নিলস মেলজার। ওই সময়ে তিনি জানান, মানসিক নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন অ্যাসাঞ্জ। অ্যাসাঞ্জের শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক উল্লেখ করে এর আগেও একবার ৬০ জনের বেশি চিকিৎসক খোলা চিঠি লিখেছিলেন। তাদের আশঙ্কা, উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতাকে যথাযথ চিকিৎসা ও মুক্তি না দিলে কারাগারে তার মৃত্যু হতে পারে। এর আগে জাতিসংঘের স্বাধীন মানবাধিকার বিশেষজ্ঞ বলেছেন, চলমান স্বেচ্ছাচারিতা ও নিপীড়নে দ্রুতই জীবন দিয়ে অ্যাসাঞ্জকে মূল্য দিতে হতে পারে। এমন বাস্তবতায় ১৮টি দেশের ১১৭ জন চিকিৎসক ও মনোবিদ ল্যানসেট-এ খোলা চিঠি লিখেছেন। ২০১২ সালের জুন থেকে লন্ডনের ইকুয়েডর দূতাবাসে রাজনৈতিক আশ্রয়ে ছিলেন উইকিলিকস প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ। গত ১১ এপ্রিল রাজনৈতিক আশ্রয় প্রত্যাহার করে তাকে ব্রিটিশ পুলিশের হাতে তুলে দেয় ইকুয়েডর। ১১ এপ্রিল তাকে জামিনের শর্ত ভঙ্গের দায়ে দোষী সাব্যস্ত করে ব্রিটিশ আদালত। তখন থেকে বেলমার্শ নামক ‘যুক্তরাজ্যের গুয়ানতানামো বে’ খ্যাত কুখ্যাত কারাগারে রাখা হয়েছে তাকে। বর্তমানে গুপ্তচরবৃত্তির দায়ে যুক্তরাষ্ট্রে প্রত্যার্পণ মামলার শুনানির অপেক্ষায় রয়েছেন তিনি। ২৬ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাজ্যের উলউইচ ক্রাউন কোর্টে ওই শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে। ২০১৯ সালের ১ মে অ্যাসাঞ্জের বিরুদ্ধে ৫০ সপ্তাহের সাজা ঘোষণা করা হয়। যুক্তরাষ্ট্রে তার বিরুদ্ধে সরকারি কম্পিউটার হ্যাক ও গুপ্তচর আইন লঙ্ঘনসহ ১৮টি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এসব অভিযোগে ট্রাম্প প্রশাসন তাকে বিচারের মুখোমুখি করতে চায়। অভিযোগ প্রমাণিত হলে তার ১৭৫ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড হতে পারে।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..