রাজশাহীতে বিভাগীয় সমাবেশে বাম বিকল্প সরকারের প্রস্তুতি নেওয়ার আহ্বান

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email

একতা প্রতিবেদক : ‘ব্যবস্থা বদলাও- ঘুষ দুর্নীতি-ধর্ষণ-সন্ত্রাস রুখো শীর্ষক স্লোগানকে সামনে রেখে হওয়া বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র রাজশাহী বিভাগীয় সমাবেশে নেতাকর্মী ও জনগণকে বাম বিকল্প সরকার গঠনের প্রস্তুতি নেওয়ার আহ্বান এসেছে। ১৯ ফেব্রুয়ারি বিকাল ৩টায় নগরীর গণকপাড়ায় অনুষ্ঠিত এ সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিপিবি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম। বিশেষ অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ জহির চন্দন। সভাপতিত্ব করেন সিপিবি’র রাজশাহী বিভাগীয় সমন্বয়ক ও সাবেক রাকসু ভিপি রাগিব আহসান মুন্না। বগুড়া জেলার সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ফরিদের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, রাজশাহী জেলার সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সদস্য কমরেড এনামুল হক, সিপিবি নাটোর জেলার সাধারণ সম্পাদক, নির্মল চৌধুরী, চাঁপাইনবাবগঞ্জের সাধারণ সম্পাদক, এ্যড. আবু হাসিব, সিরাজগঞ্জের সাধারণ সম্পাদক, শহীদুল্লাহ সবুজ, জয়পুরহাটের সাধারণ সম্পাদক এমএ রশিদ, পাবনা জেলার সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাড. আব্দুর রাজ্জাক, নওগাঁ জেলার সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সদস্য মহসিন রেজা। বক্তারা বলেন, শেখ হাসিনার ফ্যাসিষ্ট সরকারের হাত থেকে দেশকে রক্ষা করতে হবে। দেশ আজ দুইটি শ্রেণিতে বিভক্ত, একদিকে কামলা, কিষান, মুটে, মজুর, মেহনতি মানুষ। অন্যদিকে ধনিকশ্রেনী, লুটেরা, বুর্জোয়ারা। এমনকি রাজশাহীতেও এমন আছে যাদের পায়খানা বানাতে বিরাট বিরাট মুল্যবান পাথর লাগে। আবার অন্যদিকে দরিদ্ররা ৫০ টাকার অভাবে ওষুধও কিনতে পারে না। নেতৃবৃন্দ বলেন, বর্তমান সরকার থেকে শুরু করে অতীতের বিভিন্ন সরকার যে আর্থ-সামাজিক নীতিতে দেশ চালিয়েছে, চালাচ্ছে তা মেহনতি জনগন ও মধ্যবিত্তের স্বার্থবিরোধী। বাড়ছে দ্রব্যমুল্য, সেই তুলনায় সাধারন মানুষের আয় বাড়ছে না। মুষ্টিমেয় কয়েকজন বাজার সিন্ডিকেটের হাতে ‘নিত্যপণ্য’ জিম্মি, সরকার নির্বিকার ভাবে সিন্ডিকেটের স্বার্থ রক্ষা করে চলেছে। সাধারণ মানুষের শ্রমের টাকায় বড় বড় বাজেট, বড় বড় প্রকল্প নেয়া হচ্ছে, এ ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা, নেই, লুটপাটের মহোৎসব চলছে। শিক্ষা-স্বাস্থ্যকে পণ্য বানানো হয়েছে। দখল-পরিবেশ দূষন, ধর্ষন-খুন-সড়কে মৃত্যু-বিচারহীনতা স্বাভাবিক ঘটনায় পরিণত হয়েছে। সিপিবি নেতারা বলেন, সরকার ক্ষমতার ‘সোনার হরিণ’ রক্ষায় আজ মানুষের ভোটের ন্যূনতম অধিকারও কেড়ে নিয়েছে। গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান ধ্বংস করে সর্বত্র ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। এই দুঃশাসনে অতিষ্ঠ জনগণ। এ পরিস্থিতির সুযোগে সাম্প্রদায়িক জঙ্গি অপশক্তি, অগতান্ত্রিক শক্তি ষড়যন্ত্রের জাল বুনে চলেছে। সাম্রাজ্যবাদী-আধিপত্যবাদী শক্তি দেশের উপর তাদের কর্তৃত্ব বাড়াচ্ছে। ক্ষমতার লোভে ক্ষমতাসীনরা দেশের স্বার্থ বিকিয়ে নতজানু পররাষ্ট্রনীতি নিয়েছে। এ অবস্থা বদলাতে বাম সরকার গঠনের প্রস্তুতি চলছে। বক্তারা বলেন, স্বাধীনতার ৫০ বছর হতে চলল, কামলা, কিষান, মুটে, মজুর, মেহনতি মানুষেরা আজও শোষণ-বৈষম্যের শিকার। সরকারি আমলা-কর্মচারীদের বেতন বাড়লেও শ্রমিকের ন্যূনতম মজুরি নির্ধারিত হয়নি। অনেকে দেশে কাজ না পেয়ে বিদেশে গিয়ে অমানবিক কাজে বাধ্য হচ্ছে। তাদের পাঠানো টাকায় সরকার উন্নয়নের গল্প ফেঁদে বাহবা নিচ্ছে। এ অবস্থা বহাল রেখে সাধারণ মানুষের স্বার্থ রক্ষা করা যাবেনা। প্রধান দুই দলের বাইরে বিকল্প শক্তি-সমাবেশ গড়ে তুলে ‘ভাত ও ভোটের’ নিশ্চয়তার জন্য ‘গদি বদলের’ সাথে সাথে ‘ব্যবস্থা বদলের’ লড়াই জোরদার করতে আহবান জানার নেতৃবৃন্দ। জনসভায় কয়েক হাজার সমর্থক-সাধারণ মানুষসহ সিপিবির রাজশাহী বিভাগের সাত জেলা থেকে আগত নেতাকর্মী-সমর্থকরা ও স্থানীয় ছাত্র নেতৃবৃন্দ যোগ দেন। সমাবেশ শেষে বিক্ষোভ মিছিল করে নেতা-কর্মীরা। রাজশাহীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে মিছিলটি গণকপাড়ায় শেষ হয়।
প্রথম পাতা
করোনা: চীনের অভিজ্ঞতা ও বিশ্ব পুঁজিবাদের ব্যর্থতা
দেশে একজনের মৃত্যু, আরেকজন ‘আশঙ্কাজনক’
শ্রমজীবী-শিক্ষার্থীদের স্যানিটাইজার দিচ্ছে ছাত্র ইউনিয়ন
মাস্কও বানাচ্ছে যুব ইউনিয়ন
ফাঁসির আরো কাছে যুদ্ধাপরাধী আজহার
লড়াই-সংগ্রামকে বেগবান করে মেহনতি মানুষের সরকার গড়বো
মহাবিপর্যয়ে সরকারের নিস্পৃহতা দায়িত্বহীনতায় সিপিবির ক্ষোভ
করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ
সব হিসাব আছে শুধু শ্রমিকের জীবনেরটা নেই
‘বাগাড়ম্বর পরিহার করে ভাইরাস প্রতিরোধে সক্ষমতা বাড়ান’
সাংবাদিক নির্যাতন গুমের বিরুদ্ধে দরকার গণপ্রতিরোধ
‘চাই জনগণ, চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষা’
করোনাভাইরাস শনাক্তকরণের পদ্ধতি উদ্ভাবন গণস্বাস্থ্য’র
‘উল্টো রথে’

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..