কাজে আসছে না চার কোটি টাকার সেতু-কালভার্ট

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
দিনাজপুর সংবাদদাতা : দিনাজপুরে প্রায় চার কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা ছয়টি সেতু ও একটি কালভার্ট কোনো কাজে আসছে না। খানসামা উপজেলার তিনটি ইউনিয়নের বেলান ও ভূল্লি নদীর ওপর এই ছয়টি সেতু ও একটি কালভার্ট নির্মাণ করা হয়েছে। অপরিকল্পিত ও রাজনৈতিক বিবেচনায় তৈরি করা সেতুগুলোর কারণে ২৫টি গ্রামের লক্ষাধিক মানুষকে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। কৃষকদের উৎপাদিত ফসল বাজারে নিতে বিড়ম্বনায় পড়তে হচ্ছে। অপরদিকে মাঝখানে মাটি দিয়ে জোড়া সেতুর সংযোগ দেয়ায় নদীর পানি প্রবাহ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ২০১৭ সালে খানসামা উপজেলার ৪নং খামারপাড়া ইউপির আদর্শ গ্রামের পাশের বেলান নদীতে ৮০ ফুট সেতু ভেঙে ৩৬ ফুট নির্মাণ করা হয়েছে। সেতুটির দুই পাশে যানবাহন যাওয়ার কোনো রাস্তা নেই। একটি চিকন আইল রয়েছে। সেখান দিয়ে মানুষ হেঁটে চলাচল করে। এতে ওই ইউনিয়নের গারপাড়া গ্রামের হাটপুকুরপাড়া ও নাপিতপাড়ার কাছে আঙ্গারপাড়ার হাজারো মানুষের দুর্ভোগ বেড়ে গেছে। ২ নং ভেড়ভেড়ী ইউনিয়নের ভূল্লি নদীর ওপর সংযোগ সড়ক ছাড়াই পাশাপাশি দুটি সেতু নির্মাণ করা হয়েছে। একটিতে নেমপ্লেট আছে। অপরটিতে নেই। ২০১৫-২০১৬ সালে এই সেতু দুটি নির্মাণ করা হয়েছে। সেতু দুটির মাঝখানে নদীর ওপর দুই পাশে প্রাচীর দিয়ে মাটি ফেলা হয়েছে। এতে নদীর স্বাভাবিক পানি প্রবাহ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। সেতু দুটির সংযোগ সড়ক না থাকায় দুই পাড়ের মানুষকে তিন কিলোমিটার ঘুরে চলাচল করতে হয়। ১ নং আলোকঝাড়ি ইউনিয়নের শুশুলী তালেপাড়া ৪নং ওয়ার্ড এবং বাসুলী হাজীপাড়া ৬নং ওয়ার্ডে যাতায়াতে রাস্তার পাশে ডারার ওপর ফুটব্রিজ তিনমাস আগে নির্মাণ করা হয়েছে। সংযোগ রাস্তায় সাঁকো দিয়ে ফুটব্রিজ পেরিয়ে শুশুলী-২ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যেতে হয় শিশুদের। দুই পাশে সংযোগ না থাকায় সংযোগ সিঁড়ি বানিয়ে চলাচল করছে এলাকার মানুষ। খানসামা উপজেলায় সবচেয়ে আলোচিত সেতু হচ্ছে ২ নং ভেড়ভেড়ী ইউনিয়নের খামারবিষ্ণুগঞ্জ গ্রামের দয়ারাম বাবুপাড়া এবং নাপিতপাড়ার কাছে বেলান নদীতে নির্মাণ করা সেতুটি। এখানে অর্ধেক সেতু নির্মাণ করা হয়েছে। এলাকার মানুষ বাঁশ দিয়ে অর্ধেক সাঁকো বানিয়ে চলাচল করে আসছেন। ৪০ ফুট এই সেতুটি নির্মাণ করা হয়েছে ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে। সেতু পেরিয়ে নদীর পশ্চিম পাশে আধা কিলোমিটারের মধ্যে সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী এইচ এম মাহমুদ আলীর বাড়ি। ২নং ভেড়ভেড়ী ইউনিয়নের নিতাই বাজার হতে বালাডাঙ্গী যাওয়ার রাস্তায় বেলান নদীর ওপরে ৩৬ ফুট করে দুটি সেতু নির্মাণ করা হয়েছে। মাঝখানে নদীতে প্রাচীর দিয়ে মাটি ফেলে সেতু দুটির সংযোগ করা হয়েছে। এতে নদীর স্বাভাবিক পানি প্রবাহ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..