গোবিন্দগঞ্জে আদিবাসী ইউনিয়নের সমাবেশ

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
বাপ দাদার সম্পত্তি ফেরত ও তিন সাঁওতাল শ্যামল হেমব্রম, মঙ্গল মার্ডি ও রমেশ টুডু হত্যাকাণ্ডের বিচারসহ আবারও ৭ দফা দাবি জানিয়ে ১৭ জানুয়ারি গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার সাহেবগঞ্জ বাগদা-ফার্ম এলাকায় মাদারপুর গির্জা চত্বরে এক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ আদিবাসী ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় কমিটি এই কর্মসূচির আয়োজন করে। আদিবাসী নেতা বার্নাবাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের আদিবাসী ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টা দিবালোক সিংহ, আলতাফ, ইসমাইল হোসেন, আদিবাসী ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি রেবেকা সরেন, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য মিহির ঘোষ, গাইবান্ধা জেলা সিপিবির সাবেক সভাপতি ওয়াজিউর রহমান রাফেল, সিপিবি নওগা জেলা সভাপতি মহসিন রেজা, আদিবাসী ইউনিয়ন ও সাবেক ছাত্রনেতা আসলাম খান, বাগদা ফার্ম ভূমি উদ্ধার সংগ্রাম কমিটির সভাপতি ফিলিমন বাসকে, গাইবান্ধা জেলা সিপিবির সহসাধারণ সম্পাদক মুরাদ জামান রব্বানী, সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্য প্রতিভা সরকার ববি প্রমুখ। সমাবেশে বক্তারা বলেন, তিন বছর আগে ২০১৬ সালের ৬ নভেম্বর আদিবাসী পল্লীতে পুলিশের গুলিতে নিহত তিন সাঁওতাল শ্যামল হেমব্রম, মঙ্গল মার্ডি ও রমেশ টুডু নিহত হন। আহত হন অসংখ্য সাঁওতাল, সেদিন অগ্নিসংযোগ, নির্যাতনের ঘটনাও ঘটে। স্থানীয় সংসদ সদস্য আবুল কালামসহ ৩২ জনের বিরুদ্ধে সেদিন মামলা দায়ের করা হয়। মামলায় মূল আসামী পুলিশসহ কালামকে বাদ দিয়েই চার্জশিট দেয় পিবিআই। আদালতে না রাজি জানিয়ে আবেদন জানায় সাঁওতালরা। আদালত না রাজি আবেদন গ্রহণ করে পুনঃতদন্তের নির্দেশ দেয় সিআইডিকে। এভাবেই ঘুরপাক খাচ্ছে ৩ সাঁওতাল হত্যাকাণ্ডের বিচার। বক্তারা অবিলম্বে এই হত্যাকাণ্ডের বিচার নিশ্চিত করে আসামীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানান। বিজ্ঞপ্তি

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..