স্মরণসভা

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email
বগুড়ায় নাগরিক কমিটির উদ্যোগে আব্দুস সাত্তার তারার শোকসভা বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ ও প্রখ্যাত শ্রমিক নেতা প্রয়াত কমরেড আব্দুস সাত্তার তারার শোকসভা নাগরিক কমিটি, বগুড়ার উদ্যোগে গত ১৭ জানুয়ারি বিকাল ৩:৩০ মিনিটে জেলা পরিষদ মিলনায়তনে বগুড়া জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও বগুড়া নাগরিক কমিটির আহ্বায়ক বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ ও জননেতা ডা. মকবুল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। শোকসভায় আলোচক হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন উপমহাদেশের প্রখ্যাত শ্রমিক নেতা সিপিবি কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টা বীর মুক্তিযোদ্ধা মনজুরুল আহসান খান, আওয়ামী লীগ বগুড়া জেলার সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু, সিপিবি কেন্দ্রীয় কমিটির সংগঠক আসলাম খান, বগুড়া জেলা কমিটির সংগ্রামী সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা জিন্নাতুন ইসলাম জিন্না, ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র বগুড়া জেলা শাখার সহ-সভাপতি, মো. ফজলুর রহমান প্রমুখ। শোকসভা সঞ্চালন করেন নাগরিক কমিটির সদস্য সচিব সিপিবি বগুড়া জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃআমিনুল ফরিদ। কমরেড মনজুরুল আহসান খান বলেন প্রয়াত কমরেড আব্দুস সাত্তার তারা ছিলেন একজন সাচ্চা বিপ্লবী, খাঁটি দেশপ্রেমিক, বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ ও প্রখ্যাত শ্রমিক নেতা। তিনি ছিলেন শ্রমিক আন্দোলনের বাতিঘর। তিনি শ্রমিক শ্রেণীর রাজনীতি করতেন, গরীব মেহনতী মানুষের রাজনীতি করতেন। তিনি একজন সৎ ও আপোষহীন রাজনীতিবিদ ও শ্রমিক নেতা ছিলেন। কমরেড আব্দুস সাত্তার তারা জেল খেটেছেন, আত্মগোপনে থেকেছেন। তবুও আদর্শচ্যুত হন নাই, আপোষ করেন নাই, আত্মসমর্পণ করেন নাই, আমৃত্যু লড়াই করেছেন, গরিব মেহনতি মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠা এবং মুক্তির লক্ষ্যে। বিজ্ঞপ্তি বগুড়ায় আব্দুস ছাত্তার তারার শোকসভা বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি বগুড়া জেলা কমিটির উদ্যোগে উদীচী কার্যালয়ে প্রখ্যাত শ্রমিক নেতা, সিপিবি বগুড়া জেলা কমিটির সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য প্রয়াত আব্দুস ছাত্তার তারার শোকসভা গত ১৩ জানুয়ারি সোমবার বিকাল ৪ টায় সিপিবি বগুড়া জেলা কমিটির সভাপতি জিন্নাতুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। শোক সভায় বক্তব্য রাখেন সিপিবি কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. আমিনুল ফরিদ, গবেষক ড. মোকছেদুল হমিদ, সহ সাধারণ সম্পাদক হরি শংকর সাহা, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য অ্যাড. দুলাল কুন্ডু, হাসান আলী শেখ, সন্তোষ কুমার পাল, উদীচী নেতা অ্যাড. লুৎফর রহমান, শ্রমিক নেতা ফজলুর রহমান, শ্রমিক নেতা দুলাল চন্দ্র, ক্ষেতমজুর নেতা শ্রীকান্ত মাহাতো, সিপিবি বগুড়া জেলা কমিটির সাবেক সভাপতি হাফিজ আহমেদ, যুবনেতা শাহ নেওয়াজ কবির খান পাপ্পু, ছাত্রনেতা সাদ্দাম হোসেন প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি খুলনায় সাংবাদিক কমরেড মানিক সাহার হত্যাবার্ষিকী পালিত খুলনা প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি, জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি, জেলা সিপিবি’র সম্পাদকমণ্ডলীর সাবেক সদস্য, সাবেক টিইউসি নেতা সাংবাদিক কমরেড মানিক সাহার ১৬তম হত্যাবার্ষিকী পালন করেছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি–সিপিবি খুলনা জেলা ও মহানগর কমিটি। এ উপলক্ষে ১১ জানুয়ারি বিকেল ৪টায় সিপিবি জেলা ও মহানগর কার্যালয় চত্বরে জমায়েত, নগরীতে বিক্ষোভ মিছিল ও খুলনা প্রেস ক্লাবে নির্মিত শহীদ সাংবাদিক স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পমাল্য অর্পণ এবং সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। দলের কেন্দ্রীয় সদস্য ও খুলনা জেলা সভাপতি ডা. মনোজ দাশের সভাপতিত্বে এবং মহানগর সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. মো. বাবুল হাওলাদারের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন– দলের কেন্দ্রীয় সদস্য এস এ রশীদ, অরুণা চৌধুরী, জেলা সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. রুহুল আমিন, টিইউসি জেলা সভাপতি ও সিপিবি মহানগর সভাপতি এইচ এম শাহাদাৎ, জেলা সহ-সাধারণ সম্পাদক শেখ আব্দুল হান্নান, জেলা কৃষক নেতা নিতাই গাইন, অ্যাড. চিত্তরঞ্জন গোলদার, মিজানুর রহমান বাবু, সমীরন গোলদার, অশোক সরকার, কিশোর রায়, নিতাই পাল, অ্যাড. নিত্যানন্দ ঢালী, কিংশুক রায়, রুস্তম আলী হাওলাদার, নীরজ রায়, মোস্তাফিজুর রহমান রাসেল, জাহানারা আক্তারী, এস এম বাবর আলী, অধ্যাপক সঞ্জয় সাহা, শ্যামল রায়, কবি সরকার ভূষণ চন্দ্র তরুণ, তুলসীদাস রায়, মহিবুর রহমান, দেলোয়ার হোসেন, মোস্তাইন গাজী, অ্যাড. হিমাংশু বাইন, অ্যাড. সুব্রত কু-ু, অ্যাড. প্রণব গোলদার, পূর্ণেন্দু বিশ্বাস, কামরুল ইসলাম খোকন, যুব ইউনিয়ন নেতা প্রভাষক জয়ন্ত মুখার্জী, শেখ আব্দুল হালিম, ধীমান বিশ্বাস, অ্যাড. খান আজরফ হোসেন মামুন, আফজাল হোসেন রাজু, উজ্বল বিশ্বাস, ছাত্র ইউনিয়ন জেলা সভাপতি উত্তম রায়, কৃষ্ণেন্দু বাছাড়, আল আমিন, সোমনাথ দে, তন্ময় মণ্ডল, মেহেদী হাসান, সুমাইয়া বান্না, রুমা রুবায়্যি, রুপা মল্লিক, সিনথিয়া জামান একা, নাহিদ হাসান, সৌমিত্র সৌরভ, মোহাম্মদ আলী, আরিফ হোসেন, জাহিদুর রহমান, কাজী সবুজ, শরীফুজ্জামান, মিঠুন চক্রবর্তী, শিমুল ঘোষ, প্রকাশ চক্রবর্তী। বিজ্ঞপ্তি শহীদ মানিক সাহা স্মরণে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ ও সহস্র প্রদীপ প্রজ্জ্বলন বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন, খুলনা জেলা সংসদ গত ১৫ জানুয়ারি বিকেল ৪টায় প্রাক্তন জেলা ছাত্র ইউনিয়ন সভাপতি শহীদ মানিক চন্দ্র সাহার ১৬তম হত্যাবার্ষিকীতে সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে নগরীতে বিক্ষোভ মিছিল করে। এরপর খুলনা প্রেসক্লাবে শহীদ সাংবাদিক স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে প্রেসক্লাব প্রাঙ্গণে বক্তব্য রাখেন– খুলনা জেলা সংসদের সভাপতি উত্তম রায়, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক শেখ রবিউল ইসলাম রবি, কোষাধ্যক্ষ সৌমিত্র সৌরভ, সাংস্কৃতিক সম্পাদক কৃষ্ণেন্দু বাছাড় প্রমুখ। বক্তব্য শেষে শহীদ সাংবাদিক স্মৃতিস্তম্ভে সহস্র প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করা হয়। অগ্নি শপথবাক্য পাঠ করান সংগঠনের কেন্দ্রীয় সদস্য ও খুলনা জেলা সংসদের সভাপতি উত্তম রায়। এ সময়ে উপস্থিত ছিলেন– ছাত্রনেতা আল আমিন, সোমনাথ দে, তন্ময় মণ্ডল, মেহেদী হাসান, সুমাইয়া বান্না, রুমা রুবায়্যি, রুপা মল্লিক, সিনথিয়া জামান একা, নাহিদ হাসান, মোহাম্মদ আলী, আরিফ হোসেন, জাহিদুর রহমান, কাজী সবুজ, শরীফুজ্জামান, মিঠুন চক্রবর্তী, শিমুল ঘোষ, প্রকাশ চক্রবর্তী, তোয়া হাসান, ইকবাল হোসেন, জাকির হোসেন, জুয়েল হাসান, অর্চি দেবনাথ, নূরুল আমিন, সাজু, সুব্রত বিশ্বাস, সনজিৎ মিত্র বাপ্পি প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি খুলনায় কমরেড অমল সেনের স্মরণসভা উপমহাদেশের প্রখ্যাত কমিউনিস্ট নেতা, তেভাগা আন্দোলনের কিংবদন্তী কমরেড অমল সেনের ১৭তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি–সিপিবি খুলনা জেলা ও মহানগর কমিটি’র যৌথ উদ্যোগে এক আলোচনা সভা ১৭ জানুয়ারি বেলা ১১ টায় দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। সভার শুরুতে কমরেড অমল সেনের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ ও এক মিনিট নিরবতা পালনের মাধ্যমে তাঁর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করা হয়। দলের খুলনা মহানগর সভাপতি এইচ এম শাহাদতের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. মো. বাবুল হাওলাদারের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন– সিপিবি কেন্দ্রীয় সদস্য ও খুলনা জেলা সভাপতি ডা. মনোজ দাশ, কেন্দ্রীয় সদস্য এস এ রশীদ, অরুণা চৌধুরী, জেলা সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. রুহুল আমিন, সহ-সাধারণ সম্পাদক শেখ আব্দুল হান্নান, যুব ইইনিয়ন জেলা সভাপতি অ্যাড. নিত্যানন্দ ঢালী, সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক জয়ন্ত মুখার্জী, ছাত্র ইউনিয়ন জেলা সভাপতি উত্তম রায়, নগর সভাপতি চন্দন দাস, ছাত্রনেতা কৃষ্ণেন্দু বাছাড়, আল আমিন, সোমনাথ দে, মেহেদী হাসান, সুমাইয়া বান্না, রুমা রুবায়্যি, রুপা মল্লিক, সিনথিয়া জামান একা, নাহিদ হাসান, সৌমিত্র সৌরভ, মোহাম্মদ আলী, আরিফ হোসেন, জাহিদুর রহমান, কাজী সবুজ, শরীফুজ্জামান, শিমুল ঘোষ প্রমুখ। বক্তারা বলেন, কমরেড অমল সেন ছিলেন শোষণ-নিপীড়নের বিরুদ্ধে লড়াই-সংগ্রামের প্রবাদ সৈনিক। বাংলাদেশের কৃষক আন্দোলনে বিশেষ করে তেভাগা আন্দোলনে বিপ্লবী ভূমিকা অবিস্মরণীয়। ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ, এ ভূ-খণ্ডের গণতান্ত্রিক আন্দোলনের তিনি ছিলেন অগ্রসৈনিক। জমিদার পরিবারের সন্তান হয়েও জমিদারদের শোষণ-নিপীড়নের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়ে নজির সৃষ্টি করেছেন। রাজনৈতিক দূরদর্শিতা, প্রজ্ঞা ছিল প্রখর। আজীবন বিপ্লবী, ত্যাগী, দীর্ঘ কারাবরণকারী নেতা, দেশ ও জাতির জন্য দিয়ে গেছেন অনেক কিছু। এ যুগে তাঁর মত ত্যাগী মানুষ বিরল। প্রচলিত ধারার অস্থিরতা, লুটপাট, দুর্নীতি, দেউলিয়াত্মপনা রাজনীতির এ ক্রান্তিকালে কমরেড অমল সেনদের প্রয়োজনীয়তা অপরিহার্য। বক্তারা সন্ত্রাস-সাম্প্রদায়িকতা-মৌলবাদ-লুটপাট-ধর্ষণের বিরুদ্ধে বাম প্রগতিশীল শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান। বিজ্ঞপ্তি

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..